‘রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নজরদারি বাড়াতে বসছে সিসি ক্যামেরা’

৫:২৭ অপরাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- টেকনাফে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের শিবির থেকে বেরিয়ে যাওয়া ঠেকাতে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ চলছে। এছাড়া তাদের ওপর আরও নজরদারি বাড়াতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের চারপাশে ওয়াচ টাওয়ার ও সিসি ক্যামেরা বসানো হবে।

শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে কোস্টগার্ড সদর দফতরে বাহিনীর রজতজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠান শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

রোহিঙ্গাদের ওপর নজরদারি দুর্বল হয়ে পড়েছে কি-না জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মোটেও রোহিঙ্গাদের ওপর নজরদারি দুর্বল হয়নি। আপনারা জানেন ১১ লাখ রোহিঙ্গা বসবাস করছে, যা টেকনাফের জনগনের তিন গুণ। তাদের নজরদারিতে পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি, আনসারসহ সব বাহিনী কাজ করছে। রোহিঙ্গাদের ওপর নজরদারি আরও শক্তিশালী করতে ওয়াচ টাওয়ার এবং সিসিটিভি স্থাপন করা হচ্ছে। তারা যেন বের হতে না পারে সেজন্য আমাদের সব বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রোহিঙ্গা শিবিরে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। টেকনাফে আশ্রিত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর শিবির থেকে বেরিয়ে যাওয়া আটকাতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আমাদের সেনাবাহিনী ইতোমধ্যে এ কাজ শুরু করেছে। মূল উদ্দেশ্য তারা যেন শিবির থেকে বের হয়ে আমাদের জনগোষ্ঠীর সঙ্গে মিশে না যায়।’

তিনি জানান, ‘শিগগিরই উপকূলীয় এলাকায় একটি সার্ভেইল্যান্স সিস্টেম চালু করা হবে। এজন্য বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।’

এসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কোস্টগার্ড আজ আর ‘ঠুটো জগন্নাথ’ নেই। কোস্টগার্ড শক্তিশালী বাহিনীতে পরিণত হয়েছে। দেশি-বিদেশি জাহাজ, স্পিডবোর্ড ও পেট্রল বোর্ডের সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়ে আমরা কোস্টগার্ডকে আজকের শক্তিশালী বাহিনীতে পরিণত করেছি। কোস্টাল এরিয়া তো বটেই চোরাচালান রোধ, অবৈধভাবে মৎস্য আহরণ ও মাদক চোরাচালান বন্ধে সফলভাবে কাজ করেছে কোস্টগার্ড।’

Loading...