‘খালেদা জিয়ার কিছু হলে দায় সরকারকেই নিতে হবে’- মওদুদ

৬:৩০ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০ ঢাকা
ouu

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, কারা হেফাজতে খালেদা জিয়ার কিছু হলে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে। শুক্রবার রাজধানীর জা‌তীয় প্রেস ক্লা‌বের মাওলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ হ‌লে জিয়াউর রহমান সমাজকল‌্যাণ প‌রিষ‌দ আয়োজিত খা‌লেদা জিয়ার নিঃশর্ত মু‌ক্তির দা‌বি‌তে এক আলোচনা সভায় তি‌নি এ মন্তব্য করেন।

আইনের বরাত দিয়ে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, আইনে বলা আছে যদি কোনো আসামি নারী হন এবং তিনি যদি অসুস্থ ও বয়স্ক হন তাকে জামিন দিতে হবে। আদালত মানবিক কারণেও তাকে মুক্তি দিতে রাজি নন। তিনি গুরুতরভাবে অসুস্থ। কারাবন্দির দুই বছরে তার শরীরের আর কিছু বাকি নেই।

বৃহস্পতিবার উচ্চ আদালতে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানির কথা তুলে ধরে এই জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব‌লেন, আমি বৃহস্পতিবার আদালতকে স্মরণ করিয়ে দিলাম— যদি কোনো অঘটন ঘটে এর বিচার করবে কে, এর দায়িত্ব কে নেবে? সরকারকেই কিন্তু নিতে হবে এই দায়িত্ব।

দেশে রাজনীতি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে কোনো রাজনীতি নেই। যে রাজনীতি আছে সেটা অপরাজনীতি। এই রাজনীতি হল একদলীয় রাজনীতি। আর এ কারণে এদেশের মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার কোনো প্রতিফলন হচ্ছে না।
খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন বেগমান করতে ছাত্রদল-যুবদলকে আরও সংগঠিত করার আহ্বান জানান তিনি।

আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে উল্লেখ করে মওদুদ আহমদ বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি যদি আইনি প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন না হয়, আন্দোলন ছাড়া আমাদের অন্য কোনো বিকল্প নেই। এই আন্দোলন শুধু মুখে বললেই চলবে না, এটা করে দেখাতে হবে। একেবারে এমন কর্মসূচি দিতে হবে যে কর্মসূচি আমরা দৃঢ়ভাবে পালন করতে পারব।

এর আগে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল রিজভী বলেছেন, দুই বছরের বেশি সময় ধরে কারারুদ্ধ খালেদা জিয়া তার বয়স, অসুস্থতাসহ সব বিবেচনায় জামিনের যোগ্য হলেও গণভবনের সরাসরি হস্তক্ষেপে জামিন পেলেন না। তাকে জামিন দেয়া হয়নি। আবার তাকে তার মানবাধিকার, মৌলিক সাংবিধানিক ও আইনগত অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হলো।

তিনি বলেন, আদালতের ন্যূনতম স্বাধীনতা থাকলে খালেদা জিয়া জামিন পেতেন। এই বাংলাদেশে ফাঁসির আসামিরাও জামিন পায়। শত শত কোটি টাকা লুট করা ব্যক্তিরাও জামিন পায়। অথচ একজন মাত্র ব্যক্তির ক্ষমতালিপ্সা আর প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে নিজের পছন্দমতো সুচিকিৎসার সুযোগ দিতে জামিনও দেয়া হচ্ছে না।

Loading...