🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শনিবার, ৯ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৪ জুলাই, ২০২১ ৷

ট্রেনে ‘করোনা রোগী’, খবর শুনে পালালেন সব যাত্রী


❏ সোমবার, মার্চ ১৬, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- ট্রেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী রয়েছেন-এমন গুজব ছড়ানোর পর প্ল্যাটফর্ম ছেড়ে পালিয়েছেন সব যাত্রী। আজ সোমবার দুপুরে ভারতের আসাম রাজ্যের জোরহাট জেলায় এ ঘটনা ঘটে। খবর আনন্দবাজারের

জানা যায়, ট্রেনটি আসছিল চেন্নাই থেকে। প্ল্যাটফর্মে প্রবেশের আগেই খবর পেয়ে স্টেশন ছেড়ে পালিয়ে যান সব যাত্রী ও উপস্থিত সবাই। পরে রেলের পক্ষ থেকে দায়িত্ব নিয়ে খালি করে দেওয়া হয় পুরো প্ল্যাটফর্ম।

উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের মুখপাত্র শুভানন চন্দ পরে জানান, চেন্নাই এক্সপ্রেসের চার যাত্রীর কোভিড-১৯-এর মতো উপসর্গ দেখেছেন বলে এক যাত্রী ফোনে অভিযোগ করেছিলেন। সেই থেকেই আতঙ্ক ছড়ায়। রেল কোনও ঝুঁকি নেয়নি। স্টেশন ফাঁকা করে গোটা ট্রেনের যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়। দুই ব্যক্তির সর্দি-কাশি থাকলেও তা করোনার মতো ছিল না। রেলের ডাক্তারেরা ছাড়পত্র দেওয়ার পরে ফের ট্রেন ছাড়ে। বেলা একটায় শুরু হওয়া আতঙ্ক ও ভোগান্তির পর্ব শেষ হয় দুপুর দু’টো ৩৭ মিনিটে।

উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতি যাত্রার শেষে গোটা ট্রেন ডিপোয় নিয়ে গিয়ে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে। যাত্রার সময়েও নিয়ম করে দরজার হাতল, বার্থের হাতল, কল, শৌচালয়ের দরজার হাতল জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে। পর্দা ও কম্বল দেওয়া বন্ধ করা হয়েছে। কোনও যাত্রী চাইলে তবেই কম্বল দেওয়া হচ্ছে।

সম্প্রতি কেরল থেকে অসমের বিশ্বনাথ জেলার বিশ্বনাথ চারিয়ালিতে ফেরা এক ব্যক্তি নোভেল করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে সন্দেহে আজ তাঁকে তেজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কেরল থেকে আসা এক যুবক গুয়াহাটি স্টেশনে স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় পালিয়ে যান। তাঁর সন্ধানে নামে পুলিশ।

নগাঁওয়ের রহা থেকে তাঁকে ধরে গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে, ওই যুবকের দেহে কোভিড-১৯-এর উপসর্গ দেখা গিয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন