করোনা: পটুয়াখালীতে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ অনুষ্ঠানগুলো স্থগিত

১১:২৬ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, মার্চ ১৮, ২০২০ দেশের খবর, বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি- করোনা ভাইরাসের প্রভাবের কারণে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ অনুষ্ঠানগুলো অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার উপজেলার হিন্দু সম্প্রদায়ের স্ব স্ব এলাকার নেতৃবৃন্দ বসে এ সিদ্ধান্ত নেয়।

উপজেলার হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন মন্দিরের নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মহানাম যজ্ঞ অনুষ্ঠান ও ধর্মীও মেলাগুলো সাধারনত মার্চ থেকে মে মাস পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রভাব বিস্তার রোধে সরকারের পক্ষ থেকে বড় ধরনের জনসমাগম এড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। সরকারের সেই নির্দেশনাকে অতি গুরুত্বপূর্ণ ভেবে উপজেলার হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ সকল প্রকার ধর্মীয় অনুষ্ঠান স্থগিত করেছেন।

উপজেলার বাউফল পৌর কালী বাড়ি মন্দির কমিটির সভাপতি জীবন কৃষ্ণ সাহা বলেন, ১৭ মার্চ মঙ্গলবার থেকে আমাদের মন্দিরে পাঁচ দিন ব্যাপি মহানাম সংকীর্তন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দেশে করোনার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সরকার যে নির্দেশনা দিয়েছেন তা বিবেচনা করেই আমরা আমাদের অনুষ্ঠান স্থগিত করেছি।

উপজেলার ফুলতলা মহেন্দ্র পাগলা আশ্রমের সভাপতি সুশান্ত সাহা জানান, আগামী ২৪ মার্চ থেকে তিন দিন পর্যন্ত এ আশ্রমে সন্যাসীদের মেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এ উপলক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সন্যাসিদের আগমন ঘটে। এ মেলায় হাজার হাজার ভক্তের সমাগম ঘটে। করোনা ভাইরাসের কারনেই আমরা মেলাটি স্থগিত করেছি। ঠিক একই কারনে স্থগিত করা হয়েছে কনকদিয়া সার্বজনীন মন্দিরের মহানাম য্জ্ঞানুষ্ঠানুষ্ঠান।

এ বিষয়ে বাউফল পূজা উৎযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক অতুল পাল বলেন, করোনার কারনে উপজেলার সকল মন্দিরের সংশ্লিষ্ট কমিটির নেতৃবৃন্দকে সরকারের নির্দশনা অনুযায়ী জনসমাগম এড়ানোর বিষয়টি মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে।