• আজ শনিবার, ১৬ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ৩১ জুলাই, ২০২১ ৷

কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো ব্যক্তিকে চিহ্নিত করতে সিল দিচ্ছে বাংলাদেশ

sill
❏ শুক্রবার, মার্চ ২০, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়েরব কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বর্তমানে চীনের ৩০টি প্রদেশের পাশাপাশি বিশ্বের অন্তত ১৭০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাস। করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে একজনের মৃত্যু হয়েছে। আইসোলেশনে আছেন কয়েকজন। এছাড়া হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন প্রায় হাজার খানেক প্রবাসী।

কিন্তু সরকারি এ নির্দেশনা মানছেন না অনেক প্রবাসী। বুঝে কিংবা না বুঝেই অনেকে ঘুরে বেড়াচ্ছেন বাইরে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করেও তাদের ঘরে রাখা যাচ্ছে না। এ অবস্থায় হাতে অমোচনীয় কালি দিয়ে সিল মেরে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর জন্য প্রবাসীদের চিহ্নিত করছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার (২০ মার্চ) বিমানবন্দরে অবতরণ করা প্রবাসীদের শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে এমন সিল মেরে দেওয়া হচ্ছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান।

এখন থেকে ফ্লাইটগুলোতে যত বিদেশ ফেরত যাত্রী আসছেন তাদের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে যাদের করোনা আক্রান্ত সন্দেহ করা হচ্ছে তাদেরকে সেনাবহিনীর তত্ত্বাবধানে কোয়ারেন্টাইন করা হচ্ছে। আর যাদের তাপমাত্রা সন্দেহজনক মনে হচ্ছেনা তাদের হাতে সিল মেরে বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইন অবস্থায় থাকতে বলা হচ্ছে।

এরআগে, গতকালই এক বিজ্ঞপ্তিতে আইএসপিআরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এখন থেকে ইমিগ্রেশন শেষের পরই যাত্রীদের সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে নেওয়া হবে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের প্রয়োজনীয় স্ক্রিনিং করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্বাচিত ব্যক্তিদের বিমানবন্দরে প্রয়োজনীয় ইমিগ্রেশন কার্যক্রম শেষে সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হবে। হস্তান্তরের পর সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এ যাত্রীদের বিমানবন্দর থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে স্থানান্তর, ডিজিটাল ডাটা এন্ট্রি কার্যক্রম সম্পন্ন, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থাকাকালীন আহার, বাসস্থান, চিকিৎসা এবং অন্যান্য আনুষঙ্গিক সেবার ব্যবস্থা করা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের বাংলাদেশে সংক্রমণ ও বিস্তৃতির সম্ভাব্যতা এবং প্রেক্ষাপট বিবেচনায় বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে দুটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিচালনা করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এর আগে, ভারতের মহারাষ্ট্রেও হোম কোয়ারেন্টাইনড ব্যক্তিদের হাতে সিল দিয়ে চিহ্নিত করার পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন