🕓 সংবাদ শিরোনাম

নোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় বছরের সর্বোচ্চ করোনা শনাক্তপরীমনিকে ডিবি কার্যালয়ে ডেকেছে পুলিশকোনো প্রকৃত আলেমকে গ্রেফতার করা হয়নি : সংসদে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীএসএসসি-এইচএসসিতে বিকল্প মূল্যায়ন নিয়েও কাজ চলছে: শিক্ষামন্ত্রীটাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এক নারীর ধর্ষকদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধনপরীমনি ভাগ্যবতী, ত্ব-হা’র পরিবারের সেই সৌভাগ্য হয়নি: সংসদে রুমিন ফারহানাচট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ১৫৮ জনযাত্রাবাড়ী থেকে হেফাজত নেতা আজহারুল ইসলাম গ্রেফতারদালাল নির্মূলে মিটফোর্ড হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান, আটক ২৩সাইকেল চালিয়ে পদ্মা পাড়ি, পারেন প্লেন তৈরি করতেও!

  • আজ মঙ্গলবার, ১ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ১৫ জুন, ২০২১ ৷

ভারতে লকডাউন থাকলেও হিলি বন্দর দিয়ে পন্য রফতানি, আতঙ্ক


❏ বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৬, ২০২০ খুলনা, দেশের খবর

আব্দুল আজিজ, হিলি প্রতিনিধি- করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ভারত সরকার দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করলেও ভারতীয় ব্যবসায়ীরা তাদের সরকারকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে পণ্য রফতানি করেছেন।

বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেল আকস্মিকভাবে পণ্য রফতানি করায় হিলি বন্দরে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হিলি কাস্টমস সিএনএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি আব্দুল আজিজ জানায়, ভারত হিলি এক্সপোর্টার এন্ড ক্লিয়ারিং এজেন্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিত মজুমদার বুধবার বিকেলে আকস্বিকভাবে পন্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করানো হবে এই মর্মে পত্র প্রেরণ করেন। তার পত্রের প্রেক্ষিতে সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫৯টি বিভিন্ন পন্যবাহী ট্রাক হিলি বন্দর দিয়ে দেশে প্রবেশ করানো হয়েছে।

হাকিমপুর উপজেলা নিবার্হী অফিসার বলেন, ভারত লকডাউন ঘোষণা করায় বন্দরের আমদানি রফতানি বন্ধ ছিলো। বন্দরের দোকানপাট বন্ধের পরও ভারতীয় ট্রাক প্রবেশের ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলবো যেন ভারত থেকে কোন ট্রাক পণ্য নিয়ে বাংলাদেশে আসতে না পারে।

তবে উপজেলা প্রশাসন কোন পদক্ষেপ না নেওয়া সন্ধার পর হিলি চেকপোস্ট দিয়ে ৫৯ টি ট্রাক পণ্য নিয়ে হিলি স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। ভারতে করোনা প্রভাব বেশি এমতাবস্থায় ভারত থেকে ড্রাইভার হেলপার প্রবেশ করায় আতংকে রয়েছে হিলিবাসী। সচেতন মহলের দাবি হাকিমপুর প্রশাসনের নিকট করোনার প্রভাব বিস্তার করলে এর দায় কে নিবে?

এদিকে পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হিলি বন্দরে দোকানপাট বন্ধ থাকলেও ভারতীয় পন্যবার্হী ট্রাক প্রবেশ করায় ঝুকির মধ্যে পড়ছে হিলি বন্দর। তিনি হিলি বন্দরকে লকডাউন করার দাবি করেন।

হিলি বন্দরের কয়েকজন ব্যবসায়ী দাবি করেন, ভারতীয়রা তাদের সরকারের লক ডাউন আইন অমান্য করে পন্য প্রবেশের মাধ্যমে বন্দরে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে পারে তাই তারা হিলি বন্দরের আমদানি রফতানিসহ পাসপোর্ট যাত্রী পারাপার বন্ধ ঘোষণার দাবি করেন।