• আজ রবিবার। গ্রীষ্মকাল, ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। দুপুর ২:০০মিঃ

বাংলাদেশের জন্য ৩০ হাজার কিট পাঠিয়েছেন জ্যাক মা

১২:০৯ পূর্বাহ্ন | শনিবার, মার্চ ২৮, ২০২০ আন্তর্জাতিক
kit

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ দেশে করোনাভাইরাস পরীক্ষার কিট সংকট কিছুটা হলেও ঘুচছে। শুক্রবার বিকেলে আরও ৩০ হাজার কিট এসেছে চীন থেকে। বাংলাদেশকে অনুদান হিসেবে নতুন এই কিট দিয়েছে চীনের অনলাইন বিপণন প্রতিষ্ঠান আলিবাবা ও জ্যাক মা ফাউন্ডেশন।

শুক্রবার (২৭ মার্চ) ঢাকায় চীনা দূতাবাসের ফেইসবুক পাতায় এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, বিকেলে জ্যাক মা ফাউন্ডেশন এবং আলিবাবা ফাউন্ডেশন আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে ৩০ হাজার করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ কিটের চালানটি হস্তান্তর করেছে।

এর আগে নিজের ভেরিফাইড টুইটার অ্যাকাউন্টে বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশকে মাস্ক, টেস্ট কিট আর নিরাপত্তা পোশাক অনুদান হিসেবে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। সেখানে জ্যাক মা লেখেন, ১৮ লাখ মাস্ক, দুই লাখ ১০ হাজার টেস্ট কিট, ৩৬ হাজার নিরাপত্তা পোশাক করোনা মোকাবিলায় বিভিন্ন দেশে অনুদান হিসেবে দেয়া হবে।

চীন থেকে ছড়াতে শুরু করার তিন মাসের মধ্যে বিশ্বজুড়ে মহামারীর আকার পেয়েছে নভেল করোনা ভাইরাস। তবে নানা কঠোর ব্যবস্থা নিয়ে চীন নিজেদের সীমানার ভেতরে করোনা ভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯ এর প্রকোপ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসেছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে এখন সহায়তা করছে তারা।

বৃহস্পতিবার ১০ হাজার টেস্ট কিট, চিকিৎসক-নার্সদের জন্য ১০ হাজার পিপিই, ১৫ হাজার এন৯৫ মাস্ক এবং এক হাজার ইনফ্রারেড থার্মোমিটার পাঠিয়েছিল চীন সরকার।

আর বাংলাদেশে কভিড-১৯ রোগী পাওয়ার আগেই ফেব্রুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে ৫০০ টেস্ট কিট পাঠিয়েছিল চীন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত চীন থেকে ৪০ হাজার ৫০০ টেস্ট কিট পেয়েছে বাংলাদেশ।

চীন যখন বিপদে ছিল, সেই সময়ে ‘বন্ধুত্বমূলক সহায়তা’ হিসাবে ১০ লাখ হ্যান্ড গ্লাভস, পাঁচ লাখ ফেইস মাস্ক, দেড় লাখ মাথার ক্যাপ, এক লাখ হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ৫০ হাজার শু কাভার এবং ৮ হাজার গাউন পাঠিয়েছিল বাংলাদেশ সরকার।