🕓 সংবাদ শিরোনাম

খুব শীঘ্রই ঢাকা ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যান-ড্যাপ গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে:গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রীসিলেটে নারী পুলিশের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা, ইন্সপেক্টর ক্লোজডনিরাপদ সড়ক বিষয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীআফ্রিকা থেকে আসা কাউকে বোর্ডিং পাস দেয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রীকিশোরীকে জন্মনিবন্ধন দেওয়ার কথা বলে কাউন্সিলরের ধর্ষণচেষ্টামানিকগঞ্জে পানির জন্য হাহাকারচেয়ারম্যান হয়েই ১০ হাজার মানুষের কষ্ট দূর করলেন মাসুদ তালুকদারহাফ ভাড়ার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করুন: কাদেরমেয়র আব্বাসকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশচট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত ৭ জন

  • আজ শুক্রবার, ১৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

কর্মহীন মানুষদের হাতে খাবার তুলে দিল হামার ডোমার


❏ মঙ্গলবার, মার্চ ৩১, ২০২০ রংপুর

সময়ের কণ্ঠস্বর, নীলফামারী :: মরনব্যাধি করোনার কারনে সারাদেশের ন্যায় নীলফামারীর ডোমারেও দোকান-পাট,যানবাহনসহ সব কিছু বন্ধ রয়েছে। বন্ধ রয়েছে রিক্সা,ভ্যান,অটোসহ সব যান্ত্রিক যানবাহন। ফলে কর্মহীন হয়ে পরেছে এই এলাকার হাজার হাজার মানুষ। সব থেকে বিপাকে পরেছে দিনমজুর,রিক্সা ও ভ্যান চালকরা।

কর্মহীন হয়ে পরায় দোকানের কর্মচারীরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। কর্মহীন হয়ে পরা সেই সব মানুষদের পাশে দাড়িয়ে তাদের খাবার তুলে দিলেন হামার ডোমার নামে একটি সামাজিক সংগঠন। মঙ্গলবার সকাল ১১ ঘটিকায় ডোমার নাট্য সমিতি মিলনায়তনে কর্মহীন হয়ে পরা মানুষদের মাঝে খাবার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

হামার ডোমারের উদ্দোক্তা ডোমার সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি আসাদুজ্জামান চয়নের নিজস্ব তহবিল থেকে প্রায় দুই শতাধিক মানুষের মাঝে চাল,আলু,ডাল ও সাবান বিতরন করা হয়।

এ সময় ডোমার প্রেসক্লাবের সভাপতি মোজাফ্ফর আলী, সাংবাদিক আনিছুর রহমান মানিক, উপজেলা ছাত্র সমাজের আহবায়ক সাব্বির হোসেন, সদস্য সচিব খোরশেদ আলম খোকন, পৌর জাপার আহবায়ক মতিয়ার রহমান, উপজেলা স্বোচ্ছাসেবক পার্টির সদস্য সচিব মিলন ইসলাম, রংপুরের কন্ঠের প্রকাশক শরিফুল ইসলাম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

কর্মহীন হয়ে পরা মানুষজন খাদ্যসামগ্রী পেয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে। এর আগে চয়নের মা আনোয়ারা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকেও পাঁচ শতাধিক মানুষের মাঝে খাবার সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরন করেছেন প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান চয়ন।

রিক্সাচালক রশিদ বলেন বাজারে লোক না থাকায় সারাদিনে ৬০/৭০ টাকা কামাই হয়। দুইদিন থেকে আর কেউ রিক্সায় উঠে না। ফলে কোন রকমে খেয়ে না খেয়ে দিন যাপন করছি। এই সময়ে চয়ন ভাই চাল,ডাল, আলু দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করায় অনন্ত পক্ষে সাতদিন আমরা খেয়ে থাকতে পারবো।

আসাদুজ্জামান চয়ন এই সংকট মুহুর্ত্তে কর্মহীন হয়ে পরা মানুষদের সহযোগীতা করার জন্য এলাকার জনপ্রতিনিধি,ব্যবসায়ী ও ধণাঢ্য ব্যাক্তিদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।