বগুড়ায় আইসোলেশনে থাকা কিশোরের মৃত্যু

◷ ১০:৩৫ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, এপ্রিল ১, ২০২০ দেশের খবর, রাজশাহী
image 89075 1585758496

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ায় সদ্য রুপান্তরিত হওয়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও ব্যথা নিয়ে ভর্তি হওয়া ১৩ বছরের এক কিশোর মারা গেছে।

বুধবার (০১ এপ্রিল) বিকেলে মুমুর্ষ অবস্থায় ওই কিশোর ভর্তি হয় মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৭টার দিকে মারা যায় সে। তার বাড়ি জেলার গাবতলী উপজেলার মহিষাবান এলাকায়।

বগুড়ার আইসোলেশন ইউনিটে করোনা সন্দেহে ভর্তি এখন রোগী রইলো এক নারীসহ চারজন।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ডা. শফিক আমিন কাজল জানান, বুধবার বিকেলে গাবতলীর মহিষাবান থেকে ১৩ বছরের এক কিশোর খুবই খারাপ অবস্থায় এখানে ভর্তি হয়। রাত ৭টায় সে মারা গেছে।

এর আগে ওই কিশোর ৭ দিন ধরে দুই পায়ে ব্যথা, তিনদিন ধরে জ্বর নিয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ছিল। করোনার সব লক্ষণ থাকার কারণে এবং বুধবার সকাল থেকে শ্বাসকষ্ট শুরু হওয়ায় ছেলেটিকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বিকেলে আইসোলেশন ইউনিট মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এরপর আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসকেরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন ছেলেটিকে বাঁচিয়ে রাখতে। কিন্তু প্রতি ঘণ্টায় তার অবস্থার অবনতি হয় এবং হার্টবিট কমে যেতে থাকে।

ডা. শফিক আমিন বলেন, তিনি করোনা সংক্রমিত কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ছেলেটির করোনা নমুনাসহ ভর্তিকৃত সব রোগীর নমুনা পরীক্ষার জন্য বুধবারই নিজস্ব পরিবহনযোগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ফলাফল পাওয়া যাবে।