সংবাদ শিরোনাম

চসিক নির্বাচনে সহিংসতার শঙ্কা ও উদ্বেগের যথেষ্ট কারণ রয়েছে: মাহবুব তালুকদারহিলিতে সড়ক দুর্ঘটনায় চাচা-ভাতিজা নিহতকোটালীপাড়ায় রাস্তা নির্মাণে বাঁধা, এলাকাবাসীর ক্ষোভসীমান্তে চীন ও ভারতের সেনাদের মধ্যে ‘ফের সংঘর্ষ’নোয়াখালীতে আ’লীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখমসিটি ব্যাংকের স্থানান্তরিত গুলশান শাখার উদ্বোধনমেয়াদ উত্তীর্ণ বিএনপির কমিটি বাতিলের দাবিতে জামালপুরে ঝাড়ু হাতে বিক্ষোভচট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না সরকার: কাদেররংপুরে ছাত্রীনিবাস থেকে কলেজ ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধারকক্সবাজারে ভুয়া ফেসবুক আইডি খুলে অপপ্রচার, চলছে ভয়ংকর ব্ল্যাকমেইলও

  • আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কোটালীপাড়ায় টিসিবির পণ্য ক্রয়ে ক্রেতাদের ভিড়

◷ ৪:৩০ অপরাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর
6e

এইচ এম মেহেদী হাসানাত, স্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় টিসিবির পণ্য ক্রয়ে ব্যাপক ভিড় লক্ষ করা গেছে। করোনা ভাইরাসের ভয়কে উপেক্ষা করে কর্মহীন মানুষ একটু কম দামের জন্য টিসিবির পণ্য ক্রয় করছেন।

নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে ক্রেতারা টিসিবির এই পণ্য ক্রয় করছেন। তবে ক্রেতানুপাতে পণ্যের পরিমান কম থাকায় অনেক ক্রেতাকে পণ্য না পেয়ে ফিরে যেতে দেখা গেছে। এ জন্য এ উপজেলায় পণ্যের বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

জানাগেছে, কোটালীপাড়া উপজেলায় মেসার্স বাদশা এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স মায়ের দোয়া এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স নাছরিন ট্রেডার্স নামে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে টিসিবির ডিলার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে শুধু মাত্র মেসার্স বাদশা এন্টার প্রাইজের কর্ণধর মোস্তফা কামাল টিসিবির পণ্য বিক্রি করছেন। তবে তিনি চাহিদানুপাতে মাল পাচ্ছেননা বলে দাবি করেছেন।

তিনি জানান, সপ্তাহে ৫দিন টিসিবির পণ্য বিক্রয়ের নির্দেশনা রয়েছে। এর মধ্যে আমাকে প্রতিদিন ১ হাজার কেজি চিনি, ৩শত কেজি ডাল,  ২হাজার লিটার তেল দেওয়া হয়। কিন্তু এখানে এই পরিমানে ৩গুন চাহিদা রয়েছে। প্রতিদিনই এই পণ্য কিনতে এসে অনেক ক্রেতাই ফিরে যাচ্ছেন। এছাড়াও সামনে রমজান মাসে খেজুর, ছোলা, চাল, আটা দেওয়ার কথা রয়েছে। আমি চাইবো এসব পণ্যেরও যেন পরিমান বাড়ানো হয়।

আজ বৃহস্পতিবার উপজেলার ঘাঘর বাজারে টিসিবির পণ্য বিক্রি করতে দেখা গেছে। ৪ ঘন্টার মধ্যে পণ্য বিক্রি শেষ হয়ে গিয়েছে বলে ডিলারের পক্ষ থেকে জানা গেছে।

এদিকে এই পণ্য কিনতে এসে উপজেলার ঘাঘরকান্দার ভ্যান চালক জাকির মোল্লা ও ইলিয়াস হোসেন পণ্য না পেয়ে ফিরে গেছেন। তারা জানান, প্রায় ঘন্টাখানের দাড়িয়ে থেকেও পণ্য পেলাম না । আমরা এখানে পণ্যের চাহিদা বাড়ানোর দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন, এ উপজেলায় পণ্যের চাহিদা বাড়ানোর জন্য আমি উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলবো। আশা করি শীঘ্রই এ উপজেলায় টিসিবির পণ্যের পরিমান বাড়বে।