সংবাদ শিরোনাম

নিউমাকের্ট থেকে হেফাজতের আরও এক নেতা গ্রেফতারমেলান্দহে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, ড্রেজার মেশিনে আগুন দিয়ে ধ্বংসউৎপাদন বাড়াচ্ছি, শিগগিরই বাংলাদেশ টিকা পাবে: দোরাইস্বামীশরীয়তপু‌রে পা‌রিবা‌রিক দ্ব‌ন্দে স্ত্রীর ওপর অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যামাগুরায় কৃষি পণ্য উৎপাদনে জনপ্রিয় হচ্ছে ‘চাঁদের হাট’ সমন্বিত কৃষি খামার প্রকল্পহেফাজতের যুগ্ম-মহাসচিব খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী গ্রেপ্তারকরোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে সতর্ক করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রীপিরোজপুরে একমাসে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ১৮০০ জনবিমানবন্দরে অস্ত্র-গুলিসহ চিকিৎসক দম্পতি আটকটাঙ্গাইলে গৃহবধূকে রাতভর গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১

  • আজ বৃহস্পতিবার। গ্রীষ্মকাল, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। বিকাল ৫:৪২মিঃ

পাকিস্তান চাইল স্পেশাল মাস্ক, চীন পাঠাল ‘জাঙিয়া মাস্ক’

⏱ | শনিবার, এপ্রিল ৪, ২০২০ 📁 আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ চীন পাকিস্তানের একনিষ্ঠ বন্ধু। অথচ এমন বন্ধুই কি-না আচরণ করলো শত্রুর মতো। মহামারি করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে পাকিস্তানকে সহায়তার নামে এন৯৫ মাস্কের বদলে জাঙিয়া থেকে তৈরি মাস্ক পাঠিয়েছে বেইজিং।

এতেই ক্ষিপ্ত পাকিস্তানের গণমাধ্যমগুলো। খোদ পাকিস্তানি টেলিভিশনগুলো ‘চায়না নে চুনা লাগা দিয়া’ বা চীন চুনকালি মেখে দিল শিরোনামে সংবাদ প্রচার করছে।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের বরাতে এশিয়ানেট নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পাকিস্তানকে এন৯৫ মাস্ক দেয়া হলেও তার বদলে চীন সেদেশের আন্ডারগার্মেন্ট দিয়ে তৈরি মাস্ক ‘উপহার’ হিসেবে পাঠিয়েছে। ফলে অস্বস্তিতে পড়েছে পাকিস্তান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হাসির পাত্র হয়েছে ইমরান খানের সরকার।

করোনার উৎপত্তিস্থল চীন পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ওঠায় তাদের কাছ থেকে এ ভাইরাস প্রতিরোধের সামগ্রীসহ সহায়তা চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু এমন দুর্দিনে বেইজিংয়ের আচরণ বেশ মর্মাহত করেছে ইসলামাবাদকে।

স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকা মেনে কাপড়ের মাস্ক চেয়েছিল পাকিস্তান। বেইজিং আশ্বাস দিয়েছিল উন্নত এন৯৫ মাস্ক দেয়ার। কিন্তু এর বদলে তারা পাঠিয়েছে আন্ডারগার্মেন্টে তৈরি স্পঞ্জের মাস্ক। যা দেখে রেগেমেগে আগুন পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম। একটি টেলিভিশনে ওই মাস্কের চালান নিয়ে প্রতিবেদন করার সময় রেগে গিয়ে সাংবাদিক বলেই ফেলেন, ‘চায়না নে চুনা লাগা দিয়া’।

এ মাস্কের একাধিক বাক্স সিন্ধ প্রদেশে পৌঁছানোর পর একটি হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানকার চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীরা তা পরতে অস্বীকার করেন। এমনকি তারা প্রতিবাদও করেন।

সংবাদমাধ্যম বলছে, এমনিতেই করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে ইমরান খানের সরকার। এর মধ্যে সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধু রাষ্ট্রের ‘জাঙিয়া মাস্ক’ সরকারকে আরও বেকায়দায় ফেলে দিল।