সংবাদ শিরোনাম

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলিতে ৪ শ্রমিকের মৃত্যুগাছে মোটরসাইকেলে ধাক্কা, ২ ক‌লেজ ছা‌ত্রের মৃত্যুহেফাজতিরা ধর্মকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসতে চায়: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীওবায়দুল কাদেরের বাড়িতে ককটেল হামলাশাহজাদপুরে থানা পুলিশের অভিযানে ইউপি সদস্যসহ ৯ জুয়াড়ি আটকখালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ফরিদপুরে দোয়াওবায়দুল কাদেরকে কোম্পানীগঞ্জে ঢুকতে না দেওয়ার ঘোষণা কাদের মির্জারকরোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন এমপি ফারুক চৌধুরীর মাফরিদপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে কলেজ শিক্ষার্থীর ওপর হামলামামুনুল হকের কথিত শ্বশুরকে নোটিশ দেওয়ায় আ.লীগ নেতাদের হত্যার হুমকির অভিযোগ!

  • আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এখনই সারা দেশ লকডাউন করার দাবি বিএনপির

১০:৫৫ অপরাহ্ন | রবিবার, এপ্রিল ৫, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
fokk

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ করোনা মোকাবিলায় পুরো দেশকে এখনই লকডাউন করার দাবি জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার (০৫ এপ্রিল) রাজধানীর উত্তরার নিজ বাসায় এক ব্রিফিং-এ তিনি এ কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, ‘অবশ্যই লকডাউন প্রয়োজন। এখনই সারা দেশ লকডাউন করা দরকার। আমরা মনে করে, একাত্তরে যেভাবে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি, এবারও সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সংকট কাটিয়ে উঠতে পারব। তবে তার জন্য প্রয়োজন সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত।

এর আগে সকালে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশে সম্ভাব্য অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবিলায় সরকারের কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে পাঁচটি প্যাকেজে মোট ৭২ হাজার ৭৫০হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষণা দেন। মূলত সরকারের ঘোষিত এই প্রণোদনা প্যাকেজ নিয়ে দলের প্রতিক্রিয়া জানাতেই সকালে সংবাদ সম্মেলনে আসেন মির্জা ফখরুল।

ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে প্রণোদনা দিয়েছে, তাতে আমরা আশ্বস্ত হয়েছি। কারণ তিনি জনগণের মতামতকে কিছুটা গুরুত্ব দিতে শুরু করেছেন। দুর্ভাগ্যজনক বিষয় হলো, আমরা যে বিষয়টি উল্লেখ করেছি। প্রধানমন্ত্রী কিন্তু সে বিষয় সম্পর্কে কোনো কথা বলেনি। বিশেষ করে দিন আনে দিন খায়, তাদের সংখ্যা দেশে অনেক বেশি। তাদের নিয়ে তেমন কিছু তিনি বলেননি। বাংলাদেশ পোশাক শিল্পে ১৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দেয়া বিষয়ে বলেছি। কিন্তু এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সুনির্দিষ্ট কোনো বক্তব্য পাইনি।

তিনি বলেন, পরীক্ষার বিষয়ে স্বাস্থ্যখাত যে কথা বলেছে, কিন্তু এখন তো দেখা যাচ্ছে পরীক্ষা নেই, পরীক্ষা নেই অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষ যেখানে যায়, সেখানে মানুষকে বলা হয় পরীক্ষা হবে না। ভেন্টিলেটর আরও বেশি করে আনা প্রয়োজন ছিল, কিন্তু সরকার প্রধান সে বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট কথা বলেনি।

এই সংকট মোকাবিলায় যে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। তা রাজস্ব খাত থেকে আসবে সে বিষয়ে কোনো বলা হয়নি বলে অভিযোগ করেন তিনি।