• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। দুপুর ১:৩৯মিঃ

সিঙ্গাপুরে একদিনে ২০ হাজার প্রবাসী শ্রমিক কোয়ারেন্টাইনে

⏱ | সোমবার, এপ্রিল ৬, ২০২০ 📁 আন্তর্জাতিক

শাহাদাত রাসেল চৌধুরী, সিঙ্গাপুর থেকে- সিঙ্গাপুরে ৫ই এপ্রিল রেকর্ড সংখ্যক ১২০ জন প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে।

প্রতিরোধ ব্যবস্থার অংশ হিসেবে দুটি ডরমিটরি পোঙ্গল ডরমেটরি এবং তুকান ওয়েস্ট লাইট ডরমেটরি আগামী ১৪ দিনের জন্য আইসোলেটেড করা হয়েছে।

সেখানে দুটি ডরমিটরিতে প্রায় ২০ হাজার বিদেশি শ্রমিক বসবাস করেন বিভিন্ন কোম্পানির। এদের মধ্যে ধারনা করা হচ্ছে আজ অধিক পরিমাণে বাংলাদেশি শ্রমিক আক্রান্ত হয়েছে।

এর আগে এই দুই ডরমিটরি থেকে করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত রোগী সনাক্ত করা হয়েছে।

আগামী ১৪ দিন ২০ হাজার শ্রমিকের সব ধরনের চলাচলে ও রুমের বাহিরে যাওয়ার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তাদের জন্য সিঙ্গাপুর সরকার সব ধরনের সুযোগ সুবিধা নির্চিত করবে বলে সিঙ্গাপুর জনশক্তি মন্ত্রনালয় থেকে বলা হয়েছে।

সেইসঙ্গে এই কোয়ারান্টাইন সময়ের বেতনও প্রধান করা ছাড়াও সিঙ্গাপুর সরকারের পক্ষ থেকে সকল ধরনের চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য সেবা প্রধান করা হবে ।

জানা যায়, সিঙ্গাপুরে ৫ই এপ্রিল পর্যন্ত মোট ১৩০৯ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং চিকিৎসা শেষ সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছে ৩২০ জন। হসপিটালে চিকিৎসা নিচ্ছে ৫৬৯ জন, আইসিইউ রয়েছে ২৫ জন, আর মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের।

সিঙ্গাপুর স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় থেকে করোনা ভাইরাসের মোকাবিলার নিরাপদ দূরত্বের বিষয়ে সবচে গুরুত্বের সাথে সর্তক করা হচ্ছে সকল প্রকার সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা এবং নিজেকে নিরাপদ রাখার জন্য সবাইকে সর্তক করা হচ্ছে।

এই পদক্ষেপ গুলোর বিষয়ে সিঙ্গাপুরের জনশক্তিমন্ত্রী জোসেফিন টিও বলেছেন এই সকল ব্যবস্থার মূল লক্ষ্য হল সত্যিকার অর্থে সবার স্বাস্থ্য ও সুস্থতা নিশ্চিত করা। কেবল সিঙ্গাপুর নাগরিকই নয়, বিদেশী কর্মীরাও যারা এখানে আছেন, আমাদের অর্থনীতি এবং তাদের নিয়োগকারীদের সহায়তা করেন।

তিনি ৫ই এপ্রিল একটি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, “আমরা বিদেশী কর্মীদের আশ্বাস্থ করতে চাই যে এই পদক্ষেপগুলি তাদের স্বার্থ এবং তাদের মঙ্গলার্থে নেওয়া হয়েছে।