সংবাদ শিরোনাম
করোনায় ঢাকার সাবেক এমপি মকবুলের মৃত্যু | বরিশালে ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্তদের ঘর মেরামত করে দিলেন সেনাবাহিনী | এবার প্রবাসীদের বাড়িতে ঈদ উপহার পাঠালেন মাশরাফি | ইতালিতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করলেন ২৫ লাখ মুসল্লি | করোনাকালে “এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট” হিসেবে দায়িত্ব পালনের গল্প | ঠাকুরগাঁওয়ে কর্মহীনদের ঈদ উপহার দিল সেনাবাহিনী | করোনা চিকিৎসায় ১৩টি হাসপাতালে রেমডেসিভির সরবরাহ শুরু | কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ায় ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন | জীবিকার স্বার্থে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী | “পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সরকারি সহায়তা অব্যাহত থাকবে” |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘যদি মারা যাই, গার্মেন্ট মালিকদের লোভের কথা সৃষ্টিকর্তাকে বলে দেবো’

৩:৪৬ অপরাহ্ণ | সোমবার, এপ্রিল ৬, ২০২০ ফিচার
sani

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের কারণে গোটা বিশ্ব এখন আতঙ্কে। ইতিমধ্যেই ভাইরাসটি আমাদের দেশে সংক্রমিত হচ্ছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশে প্রাণ হারিয়েছে ১২ জন। আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৩ জনে।

করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে প্রথমে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। পরে এ ছুটি ক্রমান্বয়ে ১১ এরপর ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। সম্প্রতি সরকারের আহ্বানে দেশের পোশাক কারখানা বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

তবে ৪ এপ্রিল থেকে গার্মেন্টস খোলার বিজিএমইএ’র সিদ্ধান্তে ঢাকামুখী হন গার্মেন্ট কর্মীরা। দেশের এমন পরিস্থিতিতে গার্মেন্টস খোলার সিদ্ধান্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে শুরু হয় তীব্র নিন্দার ঝড়। পরে নিজেদের ঘোষণা থেকে সরে এসে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত গার্মেন্টস বন্ধ বলা হয়। ফলে নতুন করে বিপাকে পড়েন ঢাকায় হেঁটে আসা শ্রমিক পরিবাররা।

এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ওমর সানীও। তিনি তার ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আমি যদি মরে যাই, গার্মেন্টস মালিকদের লোভের কথা আল্লাহকে বলে দেব। আরও অনেক বাজেভাবে বলতে পারতাম, বললাম না। দেখুন টাকা আছে, সোনাদানা আছে, বিশাল অট্টালিকা আছে, অস্ত্র-ভাণ্ডার আছে ক্ষমতা আছে, কিন্তু কিছু অদৃশ্য শক্তির সঙ্গে পারা যায় না। ভুলের খেসারত কীভাবে দেব আমরা ঠিক জানি না।’

ওমর সানী আরও লিখেছেন, ‘আমেরিকা, ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ওদের সামনে আমরা কিছুই না। ওরাই সামাল দিতে পারছে না, আর আমরা হাস্যকর। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি আরও অনেক কঠোর হন। আরেকটি কথা অ্যাপোলো হাসপাতাল, স্কয়ার হাসপাতাল, ইউনাইটেড হাসপাতাল- এরা যদি করোনাভাইরাসের চিকিৎসা না করে, তাদের লাইসেন্স বাতিল করে দেন। মৃত্যু একদিন হবেই, চিকিৎসা পেয়ে যেন মরতে পারি। আবারও বলছি আমরা সবাই বাসায় থাকি, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখি আর আল্লাহকে ডাকি। একজন আরেকজনকে সহযোগিতা করি।’