• আজ ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আক্রান্ত ১২৩ জনের ৬৪ জনই ঢাকার, ছড়িয়েছে ১৫ জেলায়

৪:১১ অপরাহ্ণ | সোমবার, এপ্রিল ৬, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- দেশের ১৫ জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া রোগীর তথ‌্য পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

সোমবার (৬ এপ্রিল) কোভিড-১৯ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও ছিলেন  জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

ডা. আবুল কালাম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ১২৩ ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। আমার কাছে ১২১ জনের তথ্য আছে।’

‘আমি সেই তথ্য থেকেই আপনাদের বলছি- ঢাকা মহানগরীতে ৬৪ জন, নারায়ণগঞ্জে ২৩ জন, মাদারীপুরে ১১ জন, গাইবান্ধায় পাঁচ জন, চট্টগ্রামে দুই জন, চুয়াডাঙ্গা, কুমিল্লা, কক্সবাজার, গাজীপুর, মৌলভীবাজার, নরসিংদী, রংপুর, শরীয়তপুর ও সিলেটে একজন করে। আর ঢাকা মহানগরের বাইরে চারজন, জামালপুরে তিনজনের তথ‌্য পাওয়া গেছে।

অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম বলেন, ‘বাংলাদেশের ১৫ জেলা, আমরা ১৫টি জেলায় কেস পেয়েছি। কাছাকাছি যেমন একজায়গা থেকে আরেক জনের মধ্যে ছড়াতে পারে, এটা হলো ঢাকা মহানগরী, নারায়ণগঞ্জ, মাদারীপুর এবং গাইবান্ধা।’

ব্রিফিংয়ে ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টা নতুন করে ২৩ জনকে আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু ২৪ ঘণ্টায় কাউকে আইসোলেশন থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়নি। এখন পর্যন্ত মোট ৪৪৩ জনকে আইসোলেশন করা হয়েছিলো। তাদের মধ্যে ৩৩৬ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে ১০৭ জন আইসোলেশনে রয়েছে। এ ছাড়া সারাদেশে ৪৬৮ জনের নমুনা সংগ্রহ এবং পরীক্ষা করা হয়েছে।

অনলাইন ব্রিফিংয়ে আইইডিসিআর পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় যাদের করোনা শনাক্ত করতে পেরেছি, তার মধ্যে ১২ জনেই নারায়ণগঞ্জের। এর পরেই রয়েছে মাদারীপুর এলাকা।

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের।