• আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রেমিকাকে নির্যাতন করে ধানক্ষেতে ফেলে দিলো প্রেমিকের স্বজনেরা!

১০:০২ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৭, ২০২০ দেশের খবর, রাজশাহী

রাজিব আহমেদ, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: সিরাজঞ্জের শাহজাদপুরে গতকাল সোমবার বিয়ের দাবিতে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেওয়া মোমেনা খাতুন (২৮) নামের এক নারীকে বেদম মারপিট ও নির্যাতন করে ধান ক্ষেতে ফেলে দেয় প্রেমিক বেলাল হোসেনের পরিবারের লোকজন ও আত্মীয় স্বজনেরা।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শাহজাদপুর উপজেলার হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়নের ডায়া গ্রামের মৃত ফজলুর মেয়ে এক সন্তানের জননী মোমেনা খাতুনের সাথে ২ বছর আগে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে পার্শ্ববর্তী রায়পুরা গ্রামের আবুল বাশার (ভর্ষা) এর ছেলে বেলাল হোসেন (২২)।

প্রেমিক বেলাল হোসেন মোমেনা খাতুনকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ১ বছর আগে স্বামীকে তালাক দেওয়ায়। তালাকের পর থেকেই মোমেনা খাতুন প্রেমিক বেলালকে বিয়ের জন্য চাপ দিয়েও কাজ হচ্ছিলনা। এরপর থেকেই প্রেমিক বেলাল প্রেমিকা মোমেনাকে এড়িয়ে যেতে থাকে এবং বিষয়টি গ্রামে জানাজানি হলে উপায়ন্তর না দেখে প্রেমিকা মোমেনা খাতুন বিয়ের দাবিতে গত ২ এপ্রিল প্রেমিক বেলালের বাড়িতে অবস্থান নেয়।

পরে সমাজপতিরা মোমেনা খাতুনকে উপযুক্ত বিচার দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে বাবার বাড়িতে ফিরে যেতে বাধ্য করে। ৪ দিন অতিবাহিত হলেও সমাজপতিরা বিষয়টি মিমাংসার উদ্যোগ না নেওয়ায় গতকাল সোমবার সকালে আবার প্রেমিক বেলালের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয় মোমেনা খাতুন।

প্রেমিক বেলাল মোমেনা খাতুনকে দেখে পালিয়ে যায়। পরে বেলালের পরিবারের লোকজন ও আত্মীয় স্বজন মোমেনা খাতুনকে মারধর করতে থাকে। নির্যাতনে এক পর্যায়ে মোমেনা খাতুন অচেতন হয়ে পরলে তাকে পার্শ্ববর্তী ধানে ক্ষেতে ফেলে দেয়। পরে পুলিশ ও এলাকাবসীর সহায়তায় মোমেনা খাতুনকে শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

এই বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে আহত নারীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত এই বিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব‍্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।