সংবাদ শিরোনাম
করোনায় ঢাকার সাবেক এমপি মকবুলের মৃত্যু | বরিশালে ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্তদের ঘর মেরামত করে দিলেন সেনাবাহিনী | এবার প্রবাসীদের বাড়িতে ঈদ উপহার পাঠালেন মাশরাফি | ইতালিতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করলেন ২৫ লাখ মুসল্লি | করোনাকালে “এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট” হিসেবে দায়িত্ব পালনের গল্প | ঠাকুরগাঁওয়ে কর্মহীনদের ঈদ উপহার দিল সেনাবাহিনী | করোনা চিকিৎসায় ১৩টি হাসপাতালে রেমডেসিভির সরবরাহ শুরু | কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ায় ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন | জীবিকার স্বার্থে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী | “পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত সরকারি সহায়তা অব্যাহত থাকবে” |
  • আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফ্রান্সে কতজন বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত, তথ্য নেই

৭:১২ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৭, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ফ্রান্সে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। দেশটিতে সোমবার একদিনে মারা গেছেন আরও ৮৩৩ জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮ হাজার ৯শ ১১ জনে। আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮ হাজারের বেশি মানুষ।

ফ্রান্সে আক্রান্ত ৯৮,০১ জন, মারা গেছেন ৮,৯১১ জন আর সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১৭,২৫০।

ডাক্তার পুলিশ ও রেল বিভাগের কর্মকর্তা মিলে ৮ হাজারে বেশি মানুষ মারা গেছেন।

দেশটিতে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি বাস করেন। তারমধ্যে কতজন আক্রান্ত হয়েছেন বা কতজন মারা গেছেন তার কোনো নির্ভরশীল তথ্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তারাও জানান, আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা জানার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হতে পারেননি আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে।

বর্তমানে আতঙ্ক নিয়ে বসবাস করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

প্রবাসী এক বাংলাদেশি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে এ সঙ্কটকালীন আমরা অনেকে আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে রয়েছি, আমাদের চাকরি নেই, ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ। এ সঙ্কট কখন শেষ হবে সেটাও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। বাংলাদেশ সরকারে কাছে আমাদের দাবি প্রবাসী কল্যাণ তহবিল থেকে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে আমাদের আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা করা হোক।

আরেক প্রবাসী বলেন, খুব দুশ্চিন্তায় আমাদের দিন কাটচ্ছে। ঘরের মধ্যে বন্দি অবস্থায় আছি।

ক্রান্তিকালীনে বাংলাদেশ সরকারের কাছে প্রবাসী কল্যাণ তহবিল থেকে আর্থিক সহযোগিতার দাবি জানিয়েছেন তারা।

এদিকে বাংলাদেশ দূতাবাসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে সঙ্কটকালীন বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ২০ লাখ টাকার বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।