গোবিন্দগঞ্জে ফেয়ার প্রাইজের ২১ বস্তা চাল জব্দ

৮:৫৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৭, ২০২০ দেশের খবর, রংপুর

ফরহাদ আকন্দ, স্টাফ রিপোর্টার- গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার গুমানীগঞ্জ ইউনিয়নের ফুলপুকুরিয়া বাজার থেকে ফেয়ার প্রাইজের ৩০ কেজি ওজনের ২১ বস্তা চাল উদ্ধার করে জব্দ করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ ৭ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার ফুলপুকুরিয়া বাজার থেকে রজাগপুর গ্রামের সামাদ প্রফেসরের গরু’র খামারের পশ্চিম পাশে ১৫ বস্তা ফেয়ার প্রাইজের চাল পরিত্যক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে ওই ইউনিয়নের ইউ’পি সদস্য রিতুকে বলে। রিতু বিষয়টি মুঠোফোনে থানার অফিসার ইনচার্জকে জানালে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে ওইসব পরিত্যক্ত ফেয়ার প্রাইজের চাল উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন এবং বিকেলে ফুলপুকুরিয়া কেজি স্কুলের পশ্চিম পাশে ৬ বস্তা চাল দেখতে পেয়ে আবারো থানায় ফোন দিলে পুলিশ ওই ৬ বস্তা উদ্ধারকৃত চাল সহ ২১ বস্তা চাল জব্দ করেছে।

এ বিষয়ে গুমানিগঞ্জ ইউনিয়নের ফেয়ারপ্রাইজের ডিলার মানিক মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, গুমানীগঞ্জ ইউনিয়নের ১, ২, ৩, ৪ ও ৯ নং ওয়ার্ডের ৬’শ ৬ জন হতদরিদ্র উপকারভোগি সদস্যদের মাঝে শুরু থেকেই প্রতি কেজি ১০ টাকা দরে মাথাপিছু ৩০ কেজি চাল সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অফিস কার্যালয় থেকে করোনা ভাইরাসের নির্দেশনা মেনে উপকারভোগিদের মাঝে বিক্রি করা হচ্ছে। থানা পুলিশের জব্দকৃত চাল তার নয় বলে তিনি জানান। উপকারভোগি সদস্য চাল নিয়ে যদি কারো নিকট বিক্রি করে এর দায়দায়িত্ব ফেয়ারপ্রাইজের ডিলারের নয়।

তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে ইউপি সদস্য’র সাথে কথা বলে দু’জন গ্রাম পুলিশের সহায়তায় এসব চাল হতদরিদ্র উপকারভোগী সদস্য’র কাছে বিক্রি করা হচ্ছে।

গোবিন্দগঞ্জ খাদ্যনিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা স্বপন কুমার সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, খবর পেয়ে ফুলপুকুরিয়া বাজারে ফেয়ার প্রাইজের ডিলার মানিক মিয়ার গো-ডাউনে যেয়ে মাষ্টার রোল ও স্টক অনুযায়ী সঠিক পেয়েছেন।

তবে চালগুলো কোথা থেকে আসলো এ বিষয়ে তার ধারণা স্থানীয় ফড়িয়ারা উপকার ভোগীদের কাছ থেকে কিনে নিয়ে যাওয়ার সময় জনতার ভয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।