সংবাদ শিরোনাম

হেফাজতের প্রতি দুর্বলতা দেখানোর সুযোগ নেই: নানকমাদারীপুর সদর হাসপাতালে টিকার জন্যে দীর্ঘ লাইন, স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেইঅ্যাডিশনাল এসপি শামিম আমার গায়ে হাত তুলেছে: কাদের মির্জাকোভিড ভ্যাকসিনকে বিশ্বজনীন পণ্য হিসেবে ঘোষণা করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী‘হেফাজতের তাণ্ডবে বিএনপি প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত’মামুনুল হককে রিমান্ডে নিতে চায় সিআইডিওযুবকের গলায় অস্ত্রোপচারের চেষ্টা শিশু বিশেষজ্ঞের, অতঃপর…ভালুকায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ব্যবসায়ীকে হত্যালকডাউন ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারিশেরপুরে আদিবাসী নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

  • আজ মঙ্গলবার। গ্রীষ্মকাল, ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। বিকাল ৩:৫১মিঃ

১ জন করোনা রোগী ৪০৬ জনকে আক্রান্ত করতে পারে!

১১:৪৬ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৭, ২০২০ আন্তর্জাতিক
ind

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসে কার্যত স্থবির হয়ে গেছে পুরো বিশ্ব। এই করোনা ভাইরাস নিয়ে নিরন্তর গবেষণা করছেন বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা। এর মধ্যে ভারতের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন করোনায় আক্রান্ত কোনও রোগী সামাজিক শিষ্টাচার মেনে না চললে ৩০ দিনের মধ্যে ৪০৬ জনকে আক্রান্ত করতে পারে।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, এই ভাইরাসে আক্রান্ত ৭০ শতাংশ রোগীরই লক্ষণ হয় সীমিত আর তাদের কোনও বিশেষায়িত হাসপাতালে যাওয়ার দরকার পড়ে না। মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা লাভ আগারওয়াল ভারতীয় মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের এক সাম্প্রতিক গবেষণার উল্লেখ করেছেন। ওই গবেষণায় বলা হয়েছে, করোনায় আক্রান্ত কোনও রোগী যদি লকডাউনের আদেশ মানতে অস্বীকৃতি জানান বা সামাজিক শিষ্টাচার মেনে না চলেন তাহলে তার মাধ্যমে আরও চারশো জন আক্রান্ত হতে পারে।

আর এক সপ্তাহ পরেই ভারতে লকডাউন উঠে যাওয়ার কথা। তবে যেভাবে ভারতে কোভিড-১৯ সংক্রমণ বাড়ছে তা দেখে বহু রাজ্য এরই মধ্যে লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছে।

এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, লকডাউন বা কোয়ারান্টাইনের নিয়ম কেউ না মানলে তাঁর দু’বছরের জেল হতে পারে।

উল্লেখ্য ভারতে এখন পর্যন্ত চার হাজার দুইশোরও বেশি করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। তবে পর্যাপ্ত টেস্টিং কিটের অভাবে অনেক রোগীই শনাক্ত করা যায়নি বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।