করোনার মধ্যেও বায়ুদূষণে শীর্ষে ঢাকা

১১:১৩ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, এপ্রিল ১০, ২০২০ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস রোধে দেশব্যাপী গণপরিবহন বন্ধ। রাজধানীর অনেক এলাকা প্রায় লকডাউন। বন্ধ রয়েছে বড় বড় শপিংমল। সীমিত চলছে ব্যক্তিগত গাড়ি। এরমধ্যে আবারো মারাত্মক বায়ুদূষণের কারণে বিশ্বের দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় ঢাকা।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) সকালে বায়ুদূষণে আবারও সবচেয়ে খারাপ অবস্থানের (শীর্ষে) উঠে এসেছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা।

সকাল ৮টা ০৭ মিনিটে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) ঢাকার স্কোর ছিল ১৮৬। যার অর্থ এ শহরের বাতাসের মান এখনও ‘অস্বাস্থ্যকর’ পর্যায়ে রয়েছে।

একিউআই স্কোর ১৫১ থেকে ২০০ হলে নগরবাসীর প্রত্যেকের স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়তে পারে, বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধ ও রোগীরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারেন।

বিশ্বের দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় থাইল্যান্ডের চিয়াং মাই ও ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা যথাক্রমে ১৮০ ও ১৬৯ একিউআই স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় খারাপ অবস্থানে রয়েছে।

প্রতিদিনের বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা একিউআই সূচক একটি নির্দিষ্ট শহরের বাতাস কতটুকু নির্মল বা দূষিত সে সম্পর্কে মানুষকে তথ্য দেয় এবং তাদের জন্য কোন ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি হতে পারে তা জানায়।

একিউআই সূচকে ৫০ এর নিচে স্কোর থাকার অর্থ হলো বাতাসের মান ভালো। সূচকে ৫১ থেকে ১০০ স্কোরের মধ্যে থাকলে বাতাসের মান গ্রহণযোগ্য বলে ধরে নেয়া হয়। একিউআই স্কোর ১০১ থেকে ১৫০ হলে সাধারণ নগরবাসী বিশেষ করে শিশু, বয়স্ক ও অসুস্থ রোগীরা স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে পারেন।

একিউআই স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে স্বাস্থ্য সতর্কতাসহ তা জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়। এ অবস্থায় শিশু, প্রবীণ এবং অসুস্থ রোগীদের বাড়ির ভেতরে এবং অন্যদের বাড়ির বাইরের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখার পরামর্শ দেয়া হয়ে থাকে। একিউআই স্কোর ৩০১ থেকে ৫০০ বা তারও বেশি হলে বাতাসের মান ঝুঁকিপূর্ণ মনে করা হয়। এসময় স্বাস্থ্য সতর্কতাসহ প্রত্যেক নগরবাসীর জন্য জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়।