🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

রাজবাড়ীতে ৫ করোনা রোগী শনাক্ত, লকডাউন

raj
❏ শনিবার, এপ্রিল ১১, ২০২০ ঢাকা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রাজবাড়ী সদর উপজেলায় পাঁচজনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। যে কারণে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে রাজবাড়ীর ৫টি উপজেলাকে ১০ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

১১ এপ্রিল শনিবার বিকেল সাড়ে ৩ টায় জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বলেন, রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ৫জন মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে। যে কারণে শনিবার দুপুরে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির জরুরি বৈঠকে বসা হয়।বৈঠকে শেষে সিদ্ধান্ত নিয়ে পুরো জেলাকে ১০ দিনের জন্য অবরুদ্ধ (লকডাউন) ঘোষণা করা হয়েছে। রাত ১২টা থেকে এ আদেশ কার্যকর হবে।’

তিনি বলেন, ‘লকডাউন চলাকালে সড়ক ও নৌপথে অন্য কোনো জেলা থেকে কেউ এ জেলায় প্রবেশ করতে পারবেন না। এমনকি অন্য কোনো জেলায় যেতেও পারবেন না। এছাড়া জেলার ভেতরে আন্তঃউপজেলা যাতায়াতের ক্ষেত্রেও একই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। সকল ধরণের গণপরিবহন ও জনসমাগম বন্ধ থাকবে। জেলা ও উপজেলার যে কোন সীমানা দিয়ে এ জেলায় যানবাহনের প্রবেশ ও প্রস্থান বন্ধ থাকবে। জরুরি পরিসেবা, চিকিৎসা সেবা, কৃষি পণ্য ও খাদ্যদ্রব্য সরবারহ এবং সংগ্রহ লকডাউন আওতার বাইরে থাকবে। এ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

রাজবাড়ী সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলাম বলেন, ‘রাজবাড়ী থেকে করোনা সন্দেহে ৩০ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথ্ টেকনোলজিতে পাঠানো হয়। সেখান থেকে শনিবার দুপুরে আমাদের কাছে যে রিপোর্ট এসেছে তাতে রাজবাড়ী সদর উপজেলার পাঁচ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের শনাক্ত হয়েছে।

আক্রান্তরা হলেন- রাজবাড়ী শহরের বিনোদপুর এলাকার জহিরুদ্দিন (৬৫), মঞ্জু রাণী (৩৫), সদর উপজেলার বানীবহ ইউনিয়নের শিহাব (২০), চন্দনী ইউনিয়নের রাতুল (২৬) ও ফরিদপুর জেলা থেকে সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে আসা অরুন চন্দ্র (৭০)।

আক্রান্তরা সকলেই আপাতত তাদের নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। আমরা তাদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি। তাদের চিকিৎসার বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা চলছে। তিনি আরো বলেন, আক্রান্তদের ঢাকায় পাঠানো জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা করবে রাজবাড়ী স্বাস্থ্য বিভাগ।