• আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘খুনি মাজেদের ফাঁসি দেশের জন্য স্বস্তির’- আইনমন্ত্রী

❏ রবিবার, এপ্রিল ১২, ২০২০ জাতীয়
ainmon

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদের ফাঁসি বাংলাদেশের জন্য স্বস্তির বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

আইনমন্ত্রী বলেন, এটা (ফাঁসি কার্যকর) আমাদের জন্য স্বস্তির, পর্যায়ক্রমে বঙ্গবন্ধুর সব খুনিদের এনে রায় কার্যকর করা হবে।

তিনি বলেন, আমার মনে হয় জনগণের কাছে এই রায় কার্যকর করার যে প্রতিশ্রতি আমরা দিয়েছি, সেই প্রতিশ্রুতি পালন করতে পেরেছি। এরা হচ্ছে প্রকৃত খুনি। এদের সমাজে রাখাটাই উচিত না। আমরা রায় কার্যকর করতে পেরেছি। নিশ্চয় এটা আমাদের জন্য এক বিরাট স্বস্তির ব্যাপার।

এর আগে শনিবার রাত ১২ টা ১ মিনিটে মাজেদকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে কেন্দ্রীয় কারা কর্তৃপক্ষ। এর পর আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বিগত দুই দশক ধরে পা‌লি‌য়ে ভার‌ত ছিলেন আব্দুল মাজেদ। গত মা‌র্চের মাঝামা‌ঝি‌ সময়ে তি‌নি ঢাকায় আসেন। পরে গত ৬ এপ্রিল দিনগত রাত ৩টার দিকে রাজধানীর মিরপুর থেকে তাকে গ্রেফতার করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সদ‌স‌্যরা।

এর আগে ২০০৯ সালে বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় আব্দুল মাজেদসহ ১২ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে সৈয়দ ফারুক রহমান, সুলতান শাহরিয়ার রশীদ খান, বজলুল হুদা, একেএম মহিউদ্দিন আহমেদ ও মুহিউদ্দিন আহমেদের ফাঁসি ২০১০ সালের ২৭ জানুয়ারি কার্যকর হয়।

রায় কার্যকরের আগে ২০০২ সালে পলাতক অবস্থায় জিম্বাবুয়েতে মারা যান আসামি আজিজ পাশা। মাজেদ গ্রেফতার হওয়ার পর বর্তমানে পলাতক আসামি আছেন পাঁচজন। তারা হলেন- খন্দকার আবদুর রশীদ, শরিফুল হক ডালিম, এসএইচ এমবি নূর চৌধুরী, এএম রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেম উদ্দিন।