যশোরে মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা

◷ ১০:৪২ পূর্বাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৬, ২০২০ খুলনা, দেশের খবর
Image888 6

মহসিন মিলন, বেনাপোল প্রতিনিধি- যশোরে মাদক ব্যবসায় বাধা দেওয়ার জেরে বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমেদ রাসেলকে (৩৫) কুপিয়ে হত্যা ও তার ভাই আল-আমিনকে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

বুধবার রাতে যশোর সদর উপজেলার আরবপুর ইউনিয়নের বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের সরদার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রাসেল আরববপুর ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের আবু সালেক মৃধার ছেলে ও যশোর মডেল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী। আহত আল-আমিন রাসেলের ছোটভাই।

আরবপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম জানান, বুধবার রাত ১১টার দিকে বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের সরদারপাড়ায় বাড়ির সামনে চায়ের দোকানে রাসেল ও তার ভাই আল-আমিন অবস্থান করছিল।

এ সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বালিয়া ভেকুটিয়া এলাকার মোটর সাইকেল যোগে আসা পিচ্চি বাবু, শামিনুরসহ ১০/১২ জনের একটি দল ঘটনা স্থলে এসে পরিকল্পিতভাবে রাসেল ও তার ভাইকে এলাপাথারী কুপিয়ে জখম করে।

দুর্বৃত্তরা তাদের গুরুতর জখম করে ফেলে রেখে যায়। পরে পরিবারের লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক রাসেলকে মৃত ঘোষণা করেন। গুরুতর আহত আল-আমিনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আরবপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম আরও বলেন, হামলাকারীরা মাদক ব্যবসায়ী। এই দুর্বৃত্তদের অপকর্ম রুখতে তিনি দশদিন আগেও ইউনিয়ন পরিষদের প্যাডে পুলিশ প্রশাসনের কাছে আবেদন করেছেন। সেই দুর্বৃত্তরাই এ হত্যাকান্ড ঘটালো।

নিহত রাসেলের বাবা আবু সালেক মৃধার বরাত দিয়ে শাহারুল ইসলাম আরও জানান, আবু সালেক মৃধা দাবি করেছেন, একই এলাকার যুবলীগ নামধারী শহীদ এ সন্ত্রাসীদের নিয়ন্ত্রণ করে। শহীদের নির্দেশে তার বাড়িতে বসে পরিকল্পনা করেই এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এর আগেও শহীদ কয়েকবার রাসেলের ওপর হমলার চেষ্টা করেছে।

যশোর কোতয়ালী থানা পুলিশের কর্তব্যরত কর্মকর্তা এসআই সেকেন্দার জানান, পূর্ব বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। পুলিশ জড়িতদের আটকের জন্য অভিযান শুরু করেছে।

যশোর কোতয়ালী থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ খুনিদের গ্রেফতারের জন্যে রাতেই অভিযান শুরু করেছেন কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের একাধিক টিম। তবে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কোনো খুনি আটক হয়নি। তবে, খুনিদের ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার হয়েছে মতিয়ার মেম্বারের আম বাগান থেকে। যার রেজিস্টেশন নম্বর যশোর -হ-১৬-৩৮২৪।