মসজিদে জামাতের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলো পাকিস্তান

◷ ১২:৫৪ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, এপ্রিল ১৯, ২০২০ আন্তর্জাতিক
image 299618 1587276650

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে কিছু শর্ত বেধে দিয়ে মসজিদে জামাতে নামাজ পড়ার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে পাকিস্তান।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রী আরিফ আলভির সঙ্গে ধর্মীয় নেতাদের এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, আসন্ন রমজান মাস সামনে রেখে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান।

শর্তগুলো হলো: জামাতে অংশগ্রহণকারীদের মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। এছাড়া জামাতে দাঁড়াতে হলে পরস্পর থেকে কমপক্ষে ছয় ফুট দূরে দাঁড়াতে হবে। আর মসজিদ কর্তৃপক্ষ নিয়মিতভাবে চত্বরটি জীবাণুমুক্ত করবে। এছাড়া ৫০ বছরের বেশি বয়সের ব্যক্তিদের মসজিদে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হবে না।

এসব শর্ত মেনে চলা না হলে জামাতের ওপর আবারো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম জনগোষ্ঠীর দেশ পাকিস্তান। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে প্রায় এক মাস আগে দেশটিতে মসজিদে জামাতে নামাজ পড়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। কেবলমাত্র তিন থেকে পাঁচ জন জামাতে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছিলেন। তবে রমজান মাস এগিয়ে আসতে থাকায় এই নিষেধাজ্ঞা বাতিল করে নিতে সরকারের ওপর চাপ বাড়তে থাকে।

মসজিদে নামাজ আদায়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবিতে সম্প্রতি পাকিস্তানে মসুল্লিদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া দেশটির এক জনপ্রিয় ধর্মীয় নেতা নামাজ আদায়ের অনুমতি না দিলে সরকারি নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনেরও হুমকি দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত সাড়ে ৭ হাজারের বেশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর মৃত্যু হয়েছে ১৪৩ জনের। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, জনসমাগম হলে ভাইরাসটির সংক্রমণ বেড়ে গিয়ে দেশটির স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে দিতে পারে।

গত মঙ্গলবার ( ১৪এপ্রিল) পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী দেশ জুড়ে চলা লকডাউন আরো ১৪ দিন বাড়ানোর ঘোষণা দেন। তবে অত্যাবশ্যকীয় শিল্প এর আওতার বাইরে থাকবে। আগামী মে মাসের মাঝামাঝিতে পাকিস্তানে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।