🕓 সংবাদ শিরোনাম

খুব শীঘ্রই ঢাকা ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যান-ড্যাপ গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে:গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রীসিলেটে নারী পুলিশের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা, ইন্সপেক্টর ক্লোজডনিরাপদ সড়ক বিষয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীআফ্রিকা থেকে আসা কাউকে বোর্ডিং পাস দেয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রীকিশোরীকে জন্মনিবন্ধন দেওয়ার কথা বলে কাউন্সিলরের ধর্ষণচেষ্টামানিকগঞ্জে পানির জন্য হাহাকারচেয়ারম্যান হয়েই ১০ হাজার মানুষের কষ্ট দূর করলেন মাসুদ তালুকদারহাফ ভাড়ার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করুন: কাদেরমেয়র আব্বাসকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশচট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত ৭ জন

  • আজ শুক্রবার, ১৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

করোনা: ভাড়া দিতে না পারায় বের করে দিলেন বাড়িওয়ালা


❏ রবিবার, এপ্রিল ১৯, ২০২০ স্পট লাইট

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: সঠিক সময়ে ভাড়া দিতে না পারায়, ৩ সন্তানসহ একটি পরিবারকে বাসা থেকে বের করে দিলেন রাজধানী ঢাকার কলাবাগানের এক বাড়িওয়ালা।

পুলিশের হস্তক্ষেপে রাতভর চেষ্টার পরও পরিবারটির স্থান হয়নি বাসায়। সর্বশেষ বাড্ডায় মায়ের বাসায় ঠাঁই হয় তাদের।

এদিকে, করোনা রোগী সন্দেহে মিরপুরে একটি পরিবারকে বাসায় প্রবেশ করতে না দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বাড়িওয়ালার বিরুদ্ধে।

মধ্যরাত, আকাশে বৃষ্টির চোখ রাঙানি এক দুই ফোটা বৃষ্টিও শুরু হয়েছে। তখন রাজধানীর কলাবাগানের এই বাসার সামনে কুলসুম, সেলিম দম্পতির আহাজারি।

দুই মাসের শিশু তাউসিফসহ তিন সন্তানকে নিয়ে রাস্তায়, মাত্র ১ মাসের বকেয়া ভাড়ার জন্য বাসা থেকে বের করে তালা দিয়েছে বাড়িওয়ালা। পুলিশ গণমাধ্যমের বহু চেষ্টার পরও বাসায় প্রবেশ করতে না পেরে কলাবাগান থানায় পরিবারটি।

বাবা সচিবালয়ের কর্মকর্তা পরিচয় দেয়া বাসার মালিক সম্পা আক্তার ফোনের ওপাশ থেকে পরিবারটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করলেও পুলিশ বলছে সবই মিথ্যা।

সম্পা আক্তার বলেন, আমরা আব্বা সচিবালয়ে চাকরি করে। আমার ভাই র‍্যাবে চাকরি করে। ওদেরকেই জিজ্ঞাসা করেন কেন বের করে দেয়া হয়েছে। ওরা ভাঙচুর করেছে। মারপিট করেছে।

পুলিশের কর্মকর্তা বলেন, আমরা বলেছি অন্তত একটা রাত তাদের থাকতে দেন। কিন্তু তারা শোনেনি।

পরে উপায় না পেয়ে বাড্ডায় কুলসুমের মায়ের বাসায় আশ্রয় নেয় পরিবারটি। তারা বলেন, টাকা দাও না হলে বের হয়ে যাও। আমরা এই অবস্থায় উনাদের টাকা দিবো কিভাবে বলেন।

এরই মাঝে মিরপুরে আরেক পরিবার রাস্তায় এমন খবর আসে। করোনা রোগী সন্দেহে তাদেরও বাসায় প্রবেশ করতে দিচ্ছে না বাড়িওয়ালা। সেই পরিবারের সদস্যরা বলেন, হার্টের সমস্যা এবং কিডনির সমস্যার জন্যে ভর্তি ছিল। এখন বাড়িওয়ালা ঢুকতে দিচ্ছে না।

করোনা সংক্রমণে আতঙ্কিত যখন পুরোদেশ তখন মধ্যরাতে এমন ঘটনায় প্রশ্ন উঠে মানবিকতা নিয়ে।