সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বগুড়ায় করোনা শনাক্তে পিসিআর ল্যাব চালু

৬:০৯ অপরাহ্ন | সোমবার, এপ্রিল ২০, ২০২০ দেশের খবর, রাজশাহী

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ায় করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় পলিমারেজ চেইন রি-অ্যাকশন (পিসিআর) ল্যাব চালু হয়েছে।

শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের গবেষণাগারে সোমবার (২০ এপ্রিল) সকালে এর কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়।

প্রতিদিন এই ল্যাবে ৯৪টি করে নমুনা পরীক্ষা হবে এবং চার ঘণ্টা পর রিপোর্ট মিলবে। ফলে এখন আর করোনা শনাক্তে নমুনা ঢাকায় বা রাজশাহীতে পাঠানো এবং রিপোর্টের জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হবে না। এ খবরে স্থানীয় জনগণের মাঝে স্বস্তি দেখা দিয়েছে। রবিবার স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো মেশিনটি স্থাপনের কাজ শেষ হয়।

বগুড়ার সিভিল সার্জন ডা. গওসুল আজিম চৌধুরী ও শজিমেক হাসপাতাল সূত্র জানান, কেন্দ্রীয় ওষুধ সংরক্ষণাগার (সিএমএসডি) থেকে গত ৯ এপ্রিল মেশিন ও অন্যান্য সরঞ্জাম বগুড়ায় এসে পৌঁছে। গণপূর্ত অধিদফতর হাসপাতালের তৃতীয়তলায় মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের একটি কক্ষকে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের উপযোগী করে তোলে। ঢাকা থেকে আসা বিশেষজ্ঞরা গত কয়েকদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে ল্যাবটি চালু করেন। হাসপাতালে প্রয়োজনীয় সংখ্যক জনবল প্রন্তুত রয়েছে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসএমএম সালেহ্ ভুইয়া ল্যাবের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ, পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা, সিভিল সার্জন ডা. গওসুল আজিম চৌধুরী, মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. এটিএম নুরুজ্জামান সঞ্চয়, শজিমেক কলেজের অধ্যক্ষ ডা. রেজাউল আলম জুয়েল, উপাধ্যক্ষ ডা. সুশান্ত কুমার সরকার, স্বাচিপ সভাপতি ডা. সামির হোসেন মিশু, টিএমএসএসের উপ-নির্বাহী পরিচালক ডা. মতিউর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অধ্যক্ষ ডা. রেজাউল আলম জুয়েল জানান, শুরুতে এখানে স্বল্প পরিমাণ নমুনা পরীক্ষা করা হবে। কিছু নমুনা রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ল্যাবে পাঠানো হবে। যেসব রোগী করোনাভাইরাস উপসর্গ নিয়ে আসবেন চিকিৎসকের পরামর্শে তাদের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানো হবে। আপাতত পরীক্ষার রিপোর্ট ঢাকায় আইইডিসিআরে পাঠানো হবে। যেসব রোগীর পজিটিভ রিপোর্ট আসবে তাদের মোহাম্মদ আলী হাসপাতাল আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হবে।