🕓 সংবাদ শিরোনাম

‘করোনার ভারতীয় ধরন শনাক্ত বিপদজনক ভবিষ্যতের পূর্ভাবাস’কুতুপালং শিবিরে রোহিঙ্গা নেতার বাসা থেকে অস্ত্র-গুলি উদ্ধারহাজারো যাত্রী নিয়ে বাংলাবাজার ঘাটে ফেরি শাহপরাণ, ঘাট ম্যানেজারের অস্বীকার‘একটা ঈদ বাড়িতে না করলে কী হয়?’কক্সবাজারে অস্ত্র-গুলিসহ ৩ সন্ত্রাসী গ্রেফতারঝালকাঠির কলেজ ছাত্রী সুমাইয়া হত্যার বিচার দেখে মরতে চায় বাবা!সৌদিতে বাংলাদেশিসহ সকল প্রবাসীদের করোনা ভেকসিন বাধ্যতামূলক করা হয়েছেকরোনায় বেসামাল ভারত, একদিনে আরও ৪০৯২ জনের মৃত্যুচীনা রকেটের সেই ধ্বংসাবশেষ আছড়ে পড়লো মালদ্বীপের কাছেঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে চলছে দূরপাল্লার বাস

  • আজ রবিবার,২৬ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ৯ মে, ২০২১, বিকাল ৪:২০

২৫ এপ্রিল ১০ প্রতিষ্ঠানকে করোনা শনাক্তের কিট দেবে গণস্বাস্থ্য

❏ মঙ্গলবার, এপ্রিল ২১, ২০২০ ঢাকা
kit

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য গণস্বাস্থ্যের তৈরি কিট আগামী ২৫ এপ্রিল সরকারসহ সংশ্লিষ্ট ১০টি প্রতিষ্ঠানের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

যে ১০টি প্রতিষ্ঠানের কাছে কিট হস্তান্তর করা হবে সেগুলো হলো—ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা, আইইডিসিআর, আইসিডিডিআরবি, সেনা প্যাথলজি ল্যাবরেটরি, বিএসএমএমইউ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক (সিডিসি) সেন্ট্রাল ফর ডিজিজ কন্ট্রোল।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ওই নমুনা সরকার অনুমোদন করলে এক লাখ কিট সরকারকে হস্তান্তর করা হবে। তিনি বলেন, কিট সঠিক হয়েছে কি না সেটি যাচাই করার জন্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর কয়েক সিসি রক্তেরও প্রয়োজন হয়। এরই মধ্যে স্বাস্থ্যসচিবের কাছে আবেদন করে ১০টি পজিটিভ রক্তের স্যাম্পল আমরা চেয়েছি। এর আগের পরীক্ষাগুলো করা হয়েছিল বিদেশি রক্তের নমুনায়।

এক প্রশ্নের জবাবে গণস্বাস্থ্যের এই ট্রাস্টি বলেন, কুয়েত মৈত্রীসহ কয়েকটি হাসাপাতালে যোগাযোগ করে আমরা নিজেরাই রক্ত চেয়েছি; কিন্তু তারা বলেছে সরকারের অনুমোদন লাগবে।

এদিকে, করোনা পরীক্ষার কিট তৈরিতে ৯ ধরনের বিশেষ কেমিক্যাল বা কাঁচামালের প্রয়োজন হয়; যা চীন, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও সুইজারল্যান্ডে পাওয়া যায়। এর মধ্যে একটি চালান সম্প্রতি চীনের গোয়াংজু থেকে সাভারে গণস্বাস্থ্যের কারখানায় পৌঁছেছে বলে তিনি জানান। কিন্তু ফ্লাইট না থাকায় আরো দুটি চালান জার্মানি ও সিঙ্গাপুরে আটকে আছে।

এর আগে গত ১১ এপ্রিল এই প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে কিট হস্তান্তরের কথা থাকলেও গণস্বাস্থ্যের কারখানায় যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে সেটি সম্ভব হয়নি।