• আজ বুধবার, ২৯ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ১২ মে, ২০২১ ৷

আশুলিয়ায় তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’, আটক ১

❏ বুধবার, এপ্রিল ২২, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর

মোঃমনির মন্ডল, নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার- আশুলিয়ায় প্রতিবেশী এক কিশোরীর সাথে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে তৃতীয় শ্রেণীর স্কুলছাত্রী (১০)। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আলমগীর নামে (৪০) এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (২২ এপ্রিল) নির্যাতনের শিকার ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টফ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

সম্প্রতি ইয়ারপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মানিকঞ্জপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটক আলমগীর মিয়া গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার আকন্দপাড়া গ্রামের রহমান মিয়ার ছেলে। বর্তমানে সে ইয়ারপুর ইউপির মানিকগঞ্জপাড়ায় ভাড়া বাসায় বসবাস করে মাটি কাটার ভেকুর ঠিকাদারি করেন।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শকন (এসআই) আব্দুস সালাম জানান, মঙ্গলবার রাতে অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আশুলিয়ার মানিকগঞ্জ পাড়া এলাকার ভাড়া বাসা থেকে অভিযুক্ত আলমগীর মিয়াকে আটক করে। পরে ওই স্কুল ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। নির্যাতনের শিকার ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল ওসিসি সেন্টারের পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

ভুক্তভোগীর বাবা জানান, গত বৃহস্পতিবার (৯ই এপ্রিল) দুপুরে প্রতিবেশী রানী নামের এক কিশোরীর সাথে তার মামার বাসায় বেড়াতে যায়। ওই বাসায় যাওয়ার পরে আলমগীর তাকে ধর্ষণ করে। মেয়ে ভয়ে সেই দিন এই বিষয়ে কাউকে কিছু জানায়নি। মঙ্গলবার দুপুরে ওই ব্যক্তি পুনরায় তাকে (মেয়েকে) কুপ্রস্তাব দেয়। তার হাত ধরে টানাটানি করে তার বাসায় নিয়ে যেতে চায়। এই ঘটনাটি স্থানীয় দোকানদার দেখে আমাকে জানায়। এ বিষয়ে জানেতে চাইলে আগের ঘটনাটি পরিবার খুলে বলে। পরে এই বিষয়ে আশুলিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করি। অভিযোগে পেয়ে পুলিশ আলমগীরকে আটক করে।

প্রতিবেশী কিশোরী রানী জানায়, আলমগীর মামা আর আমরা এক সময় পাশাপাশি বাড়িতে থাকতাম। সে পূর্ব পরিচিত তার স্ত্রীর সাথে দেখা করতে ঘটনার দিন তার বাসায় যাই। তার স্ত্রীর বাসায় না থাকার সুযোগে ধর্ষণ করে। এই ঘটনা কাউকে জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে বাসা থেকে বের করে দেয়। আমরা ভয়ে কাউকে কিছু বলিনি।