• আজ শনিবার, ১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৫ মে, ২০২১ ৷

ব্রিটেনে মানুষের ওপর করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু আজ

vac
❏ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৩, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ গত বছরের ডিসেম্বরে চীনে উৎপত্তি হওয়া করোনা ভাইরাস বিশ্বের দুই শতাধিক দেশে ছড়িয়েছে। এতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ৯৩৩ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২৬ লাখ ৫৭২ হাজার ৩৩৭ জন।

বিজ্ঞানীরা এই ভাইরাসের ভ্যাকসিনের কাজ এগিয়ে নিতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এরই অংশ হিসেবে আজ (বৃহস্পতিবার) অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক যুক্তরাজ্যে প্রথমবারের মতো মানবদেহে করোনা ভাইরাসের পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু করতে যাচ্ছেন।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকুক জানিয়েছিলেন যে, বৃহস্পতিবার মানবদেহে অক্সফোর্ড প্রজেক্ট তাদের ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করবে।

জানা গেছে, শিম্পাঞ্জির শরীরে থাকা ভাইরাস দূর করার জন্য যে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল, সেটাই এবার মানুষের শরীরে দেওয়া হবে। প্রথম পর্যায়ে ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী ৫১০ জনকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। এই গবেষণার প্রধান অধ্যাপক সারা গিলবার্ট জানিয়েছেন, এই পরীক্ষা সফল হওয়ার সম্ভাবনা ৮০ শতাংশ।

এদিকে, জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেক এবং যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারী জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান ফাইজারের তৈরি করোনার একটি ভ্যাকসিন মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের সবুজ সঙ্কেত পেয়েছে। জার্মানির সরকারের অনুমোদন পাওয়ায় শিগগিরই করোনার এই ভ্যাকসিনটি মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হবে।

১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী সুস্থ ২০০ জনের দেহে ভ্যাকসিনটির পরীক্ষা চালানো হবে। বুধবার দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনস স্প্যান বলেছেন, এটি একটি ভালো লক্ষণ যে, জার্মানিতে একটি ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা এগিয়ে চলছে। আমরা ভ্যাকসিনটির প্রথম পরীক্ষা চালাতে পারি।

এখনও পর্যন্ত অবশ্য সব ভ্যাকসিনই পরীক্ষামূলক স্তরে আছে। করোনা ভাইরাসের কোনও প্রতিষেধক এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ভ্যাকসিন তৈরি হতে ১২ থেকে ১৮ মাস লাগতে পারে। জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরেজ জানিয়েছেন, নতুন ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হলে সারা বিশ্বে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসবে।