🕓 সংবাদ শিরোনাম

এক বিয়ে করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্যে বড়যাত্রীসহ খুলনা গেল যুবক!আমার মৃত্যুর জন্য রনি দায়ী! চিরকুট লিখে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যাইসরাইলীয় আগ্রাসনের  বিরুদ্ধে ইসলামী বিশ্বের নিন্দার নেতৃত্বে সৌদি আরবত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যুতে নিহতের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতমকলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীর মরদেহ উদ্ধারটাঙ্গাইলে কৃষক শুকুর মাহমুদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার-১ফরিদপুরে নানা আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিতজামালপুরে ঘর মেরামতের সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তিন জনের মৃত্যুশেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বিশ্বের বিস্ময় এখন বাংলাদেশ: কাদেরসেদিন অনেক ঝড় মাথায় নিয়ে দেশে আসতে হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

  • আজ সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৭ মে, ২০২১ ৷

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে বাড়তি ৩০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে চীন

chaina-who
❏ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৩, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ কিছুদিন আগে চীনের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিওএইচও) দেওয়া অনুদান বাতিল করে দেয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এমন অবস্থায় বৃহস্পতিবার এই সংস্থাকে বাড়তি তিন কোটি ডলার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে চীন।

টুইটারে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং শুয়াং বলেন, আমাদের দেশ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে বাড়তি ৩ কোটি ডলার দেওয়া হবে। বিশ্ব জুড়ে কোভিড ১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াই চালানোর জন্য এর আগে আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ২ কোটি ডলার দেব বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম।

তিনি বলেন, 'চীনের জনগণ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতি আস্থা রাখে। মহামারি রোধে এই সংস্থা যে প্রয়াস চালাচ্ছে, তাতে সাহায্য করতে চায়। সেজন্য তাদের বাড়তি অর্থ দেওয়া হচ্ছে।'

এর আগে চীনের প্রতি পক্ষ পাতিত্বের অভিযোগ তুলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে দেওয়া অনুদান বাতিল করেছেন। প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্র সংস্থাটিকে ৪০-৫০ কোটি ডলার প্রদান করে।

ট্রাম্পের অভিযোগ, করোনাভাইরাসের বিস্তার ও মোকাবিলার ক্ষেত্রে চীনের পক্ষপাতিত্ব করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। চীন থেকে এই ভাইরাস গোটা বিশ্বে ছড়িয়েছে। অথচ আগে থেকে এই ভাইরাস প্রতিরোধ করার কোনও পরামর্শ দেয়নি ডব্লিউএইচও। চীনের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দিলে এই ভাইরাস অনেক কম ছড়াত বলেও দাবি করেন ট্রাম্প।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ না মেনেই তিনি চীনাদের মার্কিন সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছিলেন। নইলে আরও ক্ষতি হতো। এর আগেও একাধিকবার করোনা সংক্রমণের জন্য চীনকে দায়ী করেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, করোনা সংক্রান্ত সঠিক তথ্য দিচ্ছে না চীন।