টাঙ্গাইলে ভাগ্নিকে ইভটিজিং করায় মামার কারাদণ্ড!

❏ শুক্রবার, এপ্রিল ২৪, ২০২০ ঢাকা
kara

মোল্লা তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলে এক স্কুলছাত্রীকে ইভটিজিং এর অভিযোগে এক যুবককে ১ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম এ দণ্ডাদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত রাজিবুল (২৮) সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের সদুল্যাপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ওই ছাত্রীর সম্পর্কে মামা হন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ওই স্কুলছাত্রীর মা তার ছোট ছেলের চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে অবস্থান করছেন। এ সময় তার ষষ্ঠ শ্রেনী পড়ুয়া মেয়েকে নানা বাড়িতে রাখেন। এ অবস্থায় ওই ছাত্রীর মামা তাকে বিভিন্ন সময় ইভটিজিং করতো এবং কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলো।

বৃহস্পতিবার সকালে হাসপাতালে এসে তার মাকে মামা কর্তৃক ইভটিজিং এর কথা জানানো হয়। পরে সাথে সাথেই ওই ছাত্রীর মা হাসপাতালে বসেই ৯৯৯ এ ফোন করে অভিযোগ করে বলেন প্রশাসন সহযোগিতা না করলে যেকোন সময় তার মেয়ের বিপদ হতে পারে। এসময় ফোনে তিনি জানান, আমার মেয়ে তার নানার বাড়িতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তার মামা কুপ্রস্তাব দিচ্ছে। যে কোন সময়ে আমার আপন ভাই আমার মেয়েকে খারাপ কিছু করতে পারে বলে ৯৯৯ জানানো হয়।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ প্রাপ্তীর পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা খুজে পেলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ইভটিজিং করার অপরাধে অভিযুক্ত রাজিবুলকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ৫০৯ ধারা অনুযায়ী এ সাজা প্রদান করেন। পরে তাকে টাঙ্গাইল জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়।