নিজেদের রেশন বগুড়ায় দুস্থদের মাঝে পৌঁছে দিচ্ছে সেনাবাহিনী


❏ শনিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২০ দেশের খবর

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: সারাদেশে কোভিড-১৯ ভাইরাস সংক্রমন ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। করোনার সংক্রমন ঠেকাতে সরকার নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। পর্যায়ক্রমে সাধারন ছুটির মেয়াদ বৃদ্ধি হচ্ছে।

সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে হাট-বাজার স্থানান্তর সহ অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে সরকার। সরকারের নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে মাঠে রয়েছে র‌্যাব, পুলিশ সহ সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

ঘর থেকে বের হতে না পেরে কর্মহীন হয়ে পড়েছে বিভিন্ন শ্রেণীপেশার কর্মজীবি মানুষ। দীর্ঘদিন গৃহবন্দি থাকায় অভাব-অনটনে অসহায় হয়ে পড়েছে এই সমস্ত মানুষগুলো। বিশেষ করে দিনআনা দিনখাওয়া মানুষগুলোর অবস্থা খুবই নাজুক হয়ে পড়েছে।

এমতাবস্থায় বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার এই সমস্ত অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা। নিজেদের বরাদ্দকৃত রেশন দুস্থদের মাঝে বিতরন করছেন তারা।

কনিবার শাজাহানপুর উপজেলার কয়েকটি গ্রামে ৫০টি দরিদ্র পরিবারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বস্তাভর্তি শুকনো খাবার চাল, ডাল, লবণ, আলু, তেল, সাবান ও মাস্ক বিতরন করেন সেনাসদস্যরা। ইতোমধ্যে উপজেলার আরো ১৮০টি অসহায় দরিদ্র পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সেনা কর্তৃপক্ষ।

সেনা সূত্র জানায়, কোভিড-১৯ ভাইরাস সংক্রমনের প্রেক্ষিতে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে সেনাসদরের নির্দেশক্রমে আর্মি ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিন কমান্ড (আর্টডক) এর অধীনস্থ এনসিও একাডেমি কর্তৃক দরিদ্র ও দুস্থ জনসাধারনের মাঝে জরুরী সাহাায্য হিসেবে বিভিন্ন প্রকার ত্রাণ সামগ্রী বিতরন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে গত কয়েক দিনে চার সহস্রাধিক পরিবারকে শুকনো খাবার, মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরন করেছে আর্টডক। এছাড়াও সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে বৃদ্ধ ও সহায়সম্বলহীন পরিবারকে নিয়মিতভাবে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান অব্যাহত রয়েছে।

এই দুর্যোগকালীন সময়ে দরিদ্র পরিবার সমুহকে আর্টডক এর অধীনস্থ এনসিও একাডেমির এই মানবিক সহায়তা কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে নিশ্চিত করেছে সূত্রটি।

দেশের এই দূর্যোগময় মূহুর্তে সেনাবাহিনীর এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন জেলার সচেতন মহল।