মসজিদ খুলে দেয়ার ঘোষণা থেকে সরে এলেন গাজীপুরের মেয়র


❏ বুধবার, এপ্রিল ২৯, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কন্ঠস্বর, গাজীপুর: গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম নগরবাসীকে সরকারি ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মেনে সীমিত পরিসরে মসজিদে নামাজ পড়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তার আগের বক্তব্য থেকে সরে এসেছেন তিনি। সরকারের নির্দেশনাই মানা হবে।

আজ বুধবার (২৯ এপ্রিল) বিকেলে মেয়র জাহাঙ্গীর নগরীর বোর্ড বাজারে সিটি করপোরেশনের আঞ্চলিক কার্যালয়ে এক ভিডিও বার্তায় এ আহ্বান জানান।

এর আগে মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম ঘোষণা দিয়েছিলেন, আগামী শুক্রবার থেকে সিটির করোনা মুক্ত এলাকাগুলোর মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে মুসল্লিদের কোনও বাধা থাকবে না। তবে একদিন পরেই আজ বুধবার এই সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে এলেন তিনি।

মেয়র জাহাঙ্গীর বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও সরকারের পক্ষ থেকে এবং বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার নীতি মেনে যে লকডাউন দিয়েছে তা শতভাগ মেনে চলছি। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে মসজিদে সীমিত আকারে লোক নিয়ে নামাজ আদায় করার জন্য।

আমরা যেন তা শতভাগ মেনে চলি। গাজীপুরে কোন জায়গায় কি অবস্থায় করোনাভাইরাসের পজিটিভ আছে এখনও আমরা সেটি শতভাগ নিশ্চিত নই। সেই হিসেবে আমরা প্রত্যেক এলাকায় যাচাই-বাছাই ও খোঁজখবর নিয়ে দেখেছি এখানে ভাসমান অনেক লোক আছে এবং বিভিন্ন গার্মেন্টসের শ্রমিকরা বাইরে থেকে এসে এখানে কাজ করছে। আমরা সুনিশ্চিত হতে পারছি না আমাদের মহল্লা ভিত্তিক, ওয়ার্ড ও থানা ভিত্তিক কোথায় এ ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা কত।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী, সরকার, ধর্ম মন্ত্রণালয় ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে যেভাবে দিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে আমরা যেন সেভাবে মসজিদ ভিত্তিক ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সেটা মেনে চলি। প্রয়োজনে আপাতত আমরা ঘরেই নামাজ আদায় করি। করোনাভাইরাস নিয়ে আমরা আতঙ্কিত আছি। আমাদের সন্তানরা, আমাদের পরিবার, আত্মীয়-স্বজন আমাদের নগরের প্রত্যেক নাগরিকদের জীবনের কথা চিন্তা করে আমি সবাইকে অনুরোধ করবো যেটা আমাদের প্রধানমন্ত্রী এবং সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এবং ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সেটা যেন আমরা শতভাগ মেনে চলি।

তিনি বলেন, মহানগরীর প্রত্যেক নাগরিককে অনুরোধ করবো ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সেটা অনুসরণ করে মসজিদে আপনারা সীমিত আকারে মুসল্লি নিয়ে নামাজ আদায় করবেন। করোনাভাইরাস থেকে আমরা যেন মুক্ত হতে পারি সবাই যেন সবাইকে সহযোগিতা করি।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) ভিডিও বার্তায় মেয়র বলেন, ‘পুরো জেলার তুলনায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫৭টি ওয়ার্ডে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা তুলনামূলক কম। যেহেতু বিজিএমইএ গার্মেন্টস খুলে দিচ্ছে, এছাড়া এখন রমজান মাস, সেহেতু যেসব ওয়ার্ডে কোনও করোনা আক্রান্ত রোগী নেই সেসব ওয়ার্ডের মসজিদে আগামী শুক্রবার থেকে ইচ্ছুক মুসল্লিরা মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করতে পারেন। তারা মহান আল্লাহর দরবারে করোনা থেকে গাজীপুরসহ দেশ ও বিশ্ববাসীর জন্য দোয়া করতে পারেন। তারাবির নামাজ আদায় করতে পারেন। এজন্য সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে সার্বিকভাবে সহায়তা করা হবে।’

গাজীপুর সিটি মেয়রের এমন ঘোষণায় নগরীর বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ ও মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দ এবং আলেম ওলামাগণ দ্বিধাদ্বন্ধে পড়ে যান। তারা সরকারের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মানবেন, নাকি গাজীপুরের সিটি মেয়র যে নির্দেশ দিয়েছে সেটা মানবেন। এ অবস্থায় বুধবার মেয়র আরেক ভিডিও বার্তায় তার আগের বক্তব্য থেকে সরে এসে সরকারের ধর্ম মন্ত্রণালয় যে নির্দেশনা দিয়েছে তা মেনে চলার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন