৪ মে খুলে দেয়া হচ্ছে বসুন্ধরার আইসোলেশন সেন্টার

১০:৪৭ অপরাহ্ন | বুধবার, এপ্রিল ২৯, ২০২০ ঢাকা
basun

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ দেশে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য আগামী ৪ মে খুলে দেয়া হচ্ছে বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারের আইসোলেশন কেন্দ্র। হাসপাতালটির কাজ শুরু হয় ১৩ মে। এরইমধ্যে প্রায় ২০১৩টি বেড সেবার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।

হাসপাতাল নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান অনিক ট্রেডিং করপোরেশন জানায়, তিনদিনের মধ্যে প্রাথমিকভাবে প্রস্তুত বেডগুলো স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অনিম ইসলাম বলেন, আমাদের ৯৮ শতাংশ কাজ শেষ। একই সঙ্গে সিটিংয়ের যে প্রোসেস সেটা এখনো চলমান রয়েছে। প্রতিটি ক্লাসটারে ২৪৮টা বেড রয়েছে। সেখানে আটজন করে ডাক্তার ও ৩২ জন নার্স থাকবে।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে হাসপাতালটির সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. জাহেদ মালিক। তিনি বলেন, মে মাসের ৪ তারিখের মধ্যে আমরা সেবায় দিয়ে দিতে পারবো। যারা আইসোলেশনে থাকবেন; তাদেরকে এখানে রাখবো।

মন্ত্রী বলেন, ‘বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে ২০০০, ডিএনসিসি মার্কেটে ১৩০০ ও উত্তরার দিয়াবাড়িতে ১২০০ উন্নত নতুন শয্যা এখন প্রায় পুরোপুরি প্রস্তুত হয়ে গেছে। আশা করা যাচ্ছে, এ সপ্তাহের মধ্যেই এগুলো উদ্বোধন করে উন্মুক্ত করা যাবে। এগুলোর পাশাপাশি দেশের রাজধানীসহ জেলা-উপজেলায় আরও ৬০১ প্রতিষ্ঠানে করোনা আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে। সব মিলিয়ে করোনা মোকাবিলায় দেশে এখন ২০ হাজারেরও বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত হয়ে গেছে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, করোনায় পর্যাপ্ত আইসোলেশন শয্যা, আইসিইউ সেন্টার, ভেন্টিলেটর ও অক্সিজেন সিলিন্ডার বৃদ্ধিসহ নতুনভাবে আরও ২ হাজার চিকিৎসক ও ৬ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। এদের পাশাপাশি বেশকিছু মেডিকেল টেকনোলজিস্টও আপাতত আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মিডিয়া সেলের আহ্বায়ক অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মো. হাবিবুর রহমান খান, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।