প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে কোন জেলায় কতজন আক্রান্ত

১২:০৩ পূর্বাহ্ন | শুক্রবার, মে ১, ২০২০ ফিচার
coronabd

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে। কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না এই সংক্রমণ। গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে প্রথম রোগী শনাক্ত করা হয়। এর পর থেকে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের (আইইডিসিআর) প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা সাত হাজার ৬৬৭ জন ও আইসোলেশনে আছেন আরো সাত হাজার ৩৩৯ জন। মোট মৃত্যু ১৬৮ জন।

করোনা ভাইরাসে ভয়াবহ প্রকোপে পড়েছে রাজধানী ঢাকা। জনবহুল ও নমুনা সংগ্রহ সহজলভ্য হওয়ায় শুধু ঢাকায় সিটিতে আক্রান্ত ৫৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ আর সম্পূর্ণ ঢাকা বিভাগে শনাক্ত হয়েছে ৮৩ শতাংশ। মৃত্যুর সংখ্যাতেও এগিয়ে আছে ঢাকা সিটি। ঢাকা সিটিতে আজকে মারা গেছে আরো চারজন অর্থাৎ ঢাকায় মোট মৃত্যু ৮৯ জন। আইইডিসিআর প্রকাশিত মোট আক্রান্ত জেলার সংখ্যা বর্তমানে ৬৩টি। প্রায় সকল বিভাগেই আক্রান্ত বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে।

শুধু ঢাকা বিভাগেই সর্বমোট আক্রান্ত পাচ হাজার ৭৪৩ জন। এর মধ্যে শুধু ঢাকা সিটিতে তিন হাজার ৭৫১, নারায়ণগঞ্জে ৯২৩, গাজীপুরে ৩২২, কিশোরগঞ্জে ২০০, মাদারীপুরে ৩৯, মানিকগঞ্জে ২১, মুন্সীগঞ্জে ১১০, নরসিংদীতে ১৪৫, রাজবাড়ীতে ১৭, ফরিদপুরে ১২, টাঙ্গাইলে ২৯, শরীয়তপুরে ৩০, গোপালগঞ্জে ৪৫, ঢাকার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ৯৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

এদিকে চট্টগ্রামে সর্বমোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৯৬ জন। বিভাগটিতে আক্রান্তের সংখ্যা এক শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে চার দশমিক ২৯ শতাংশ। চট্টগ্রাম জেলায় ৭৪, কক্সবাজারে ২৩, কুমিল্লায় ৯৩, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৪০, লক্ষ্মীপুরে ৩৫, বান্দরবান ৪, নোয়াখালীতে ৬, ফেনী ৪, চাদপুরে ১৪ জন আক্রান্ত হয়েছে। চট্রগ্রাম বিভাগে মারা গেছে সর্বমোট ১০ জন।

ময়মনসিংহ বিভাগের জামালপুরে ৬১, নেত্রকোনায় ২৯, শেরপুরে ২৫, ময়মনসিংহ জেলায় ১৪৩ জনসহ মোট ২৫৮ জন আক্রান্ত। এখন পর্যন্ত ময়মনসিংহে মারা গেছে মোট পাচ জন।

এছাড়াও খুলনায় ১১, ঝিনাইদহে ১৯, যশোরে ৬৩, চুয়াডাঙ্গায় ৯, বাগেরহাটে ২, মাগুরা ৭, মেহেরপুর ২, কুষ্টিয়া ১৫, সাতক্ষীরা ১ ও নড়াইলে ১৩ জনসহ মোট ১৪২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর খবর পাওয়া গেছে। আর বরিশাল বিভাগে বরিশাল জেলায় ৪০, বরগুনায় ৩০, পটুয়াখালীতে ২৭, পিরোজপুরে ৯, ভোলাতে ৫, ঝালকাঠিতে ৮ জনসহ মোট ১১৯ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

সিলেটের মৌলভীবাজারে ১২, সুনামগঞ্জে ২৮, হবিগঞ্জে ৫৩, সিলেট জেলায় ১৮ জনসহ মোট ১১১ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। সিলেটে এখন পর্যন্ত চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

রংপুরের গাইবান্ধায় ২১, নীলফামারীতে ১৩, লালমনিরহাটে ৩, কুড়িগ্রামে ৭, দিনাজপুরে ২০, ঠাকুরগাঁওয়ে ১৬, রংপুর জেলায় ৩১, পঞ্চগড়ে ৮ জনসহ মোট ১১৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে রাজশাহী জেলায় ১৯, জয়পুরহাটে ৩২, বগুড়ায় ১৯, নওগায় ১৫, সিরাজগঞ্জে ৩, নাটোর ৯, চাপাইনবাবগঞ্জে ২ ও পাবনায় ১০ জনসহ মোট ১০৯ জন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। করোনাভাইরাসে সারাবিশ্বের সাথে পাল্টে গেছে বাংলাদেশের জীবন যাত্রার চিত্র। এদিকে সংক্রমণ ঠেকাতে বেড়েছে লকডাউন স্থানের সংখ্যা। দেশে বর্তমানে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হয়েছে প্রায় ৩৯৫টি উপজেলা, ৪৯টি জেলা ও ৩টি বিভাগ।