ভারতে করোনায় সুস্থতার হার ২৫%, মৃত্যু ৩.২%

১:০০ পূর্বাহ্ন | শুক্রবার, মে ১, ২০২০ আন্তর্জাতিক
ind

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতে করোনা ভাইরাসে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যু সংখ্যা। দেশটিতে সুস্থ হওয়ার হার ২৫ শতাংশ। আর মৃত্যুর হার ৩.২ শতাংশ। গেল দুই সপ্তাহের ব্যবধানে হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হওয়ার হার দ্বিগুণ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি। এতে বলা হয়েছে, দেশে করোনায় সুস্থ হওয়ার হার বেড়ে ২৫ দশমিক ১৩ শতাংশ হয়েছে। যা গেল দুই সপ্তাহ আগে ছিল মাত্র ১৩ শতাংশ। এছাড়াও আক্রান্ত সংখ্যা অগ্রগতি হয়েছে।

এর আগে ভরতে লকডাউন করার আগে আক্রান্ত দ্বিগুণ সময় লেগেছিল মাত্র ৩ দশমিক ৪ দিন। কিন্তু সারাদেশে লকডাউন জারির পর রোগীর সংখ্যা ১১ গুণ হয়েছে।

ভারতে করোনায় বর্তমানে মৃত্যুর হার ৩ দশমিক ২ শতাংশ। মৃতদের মধ্যে ৬৫ শতাংশ পুরুষ এবং ৩৫ শতাংশ নারী বলে জানিয়েছে দেশটির এই মন্ত্রণালয়।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব লাল আগারওয়াল বলেন, রাজধানী নয়াদিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, জম্মু-কাশ্মীর, ওডিশা, রাজস্থান, তামিলনাডু এবং পাঞ্জাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হতে সময় লেগেছে ১১ থেকে ২০ দিন। অন্যদিকে, কর্ণাটক, লাদাখ, হরিয়ানা, উত্তরাখণ্ড এবং কেরালায় ২০ থেকে ৪০ দিনের মধ্যে আক্রান্ত দ্বিগুণ হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলেন, দেশজুড়ে গত ২৪ মার্চ থেকে লকডাউন জারির কারণে করোনা সংক্রমণের বিস্ফোরণ ঠেকানো গেছে। লকডাউন জারি না করা হলে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়ার শঙ্কা থাকতো।

এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ভারতে চলছে টানা লকডাউন। আগামী ৩ মে পর্যন্ত এই লকডাউন জারি রয়েছে। এর পরবর্তীতে এই লকডাউন নিয়ে ভারত সরকার কী সিদ্ধান্ত নেবে সেদিকেই এখন সবার নজর রয়েছে।

বুধবার দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় অবশ্য জানিয়েছে, করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের নতুন নির্দেশিকা দেওয়া হবে যার ফলে দেশের অনেক রাজ্যেরই নানা জেলায় বিধিনিষেধে যথেষ্ট শিথিলতা দেওয়া হবে, তবে নতুন এই নিয়মটি ৪ মে থেকে কার্যকর করা হবে।