• আজ ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনা থেকে মুক্তির প্রথম ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দিল যুক্তরাষ্ট্র

১২:২৩ অপরাহ্ন | শনিবার, মে ২, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- প্রথমবারের মতো জরুরি প্রয়োজনে ওষুধ ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে মার্কিন কর্তৃপক্ষ, যা করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীকে দ্রুত পুনরুদ্ধার করতে সহায়তা করতে পারে।

করোনার বিরুদ্ধে কার্যকর চিকিৎসার জন্য বৈশ্বিক অনুসন্ধানের ক্ষেত্রে এ ওষুধকে একটি মাইলফলক হিসাবে বিবেচনা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

অক্সিজেন বা ভেন্টিলেটরের জন্য শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভুগছেন বা হাসপাতালে ভর্তি ‘মারাত্মক রোগে’ আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে পরিপূরক হিসাবে গিলিয়ড সায়েন্সেস’র ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে এ ওষুধ অনুমোদনের ঘোষণা দেন। এসময় গিলিয়ডের সিইও ড্যানিয়েল ও’ডে এবং খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের কমিশনার স্টিফেন হ্যান উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গিলিয়ড সায়েন্স-এর ওষুধ ‘রেমডেসিভির’ এর পরীক্ষামূলক ব্যবহারে ইতিবাচক ফলাফল পাওয়া গেছে উল্লেখ করে এটির কার্যকারিতার বিষয়ে হোয়াইট হাউসকে অবগত করেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা। ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল হিসাবে এ ওষুধের কার্যকারিতার প্রমাণের পর আশঙ্কাজনক রোগীদের ক্ষেত্রে রেমডেসিভির ব্যবহার করা হয়।

মরণঘাতী করোনার থাবায় বিশ্বজুড়ে যখন ২ লাখ ৩৮ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে এবং এ থেকে মুক্তি পেতে বিশ্ব যখন দিশেহারা তখন মার্কিন বিশেষজ্ঞ ফুসি দাবি করেন, ‘আমরা বহু পরীক্ষা চালিয়েছি, করোনা আক্রান্ত রোগীদের সারিয়ে তুলতে রেমডেসিভির প্রায় ৩১ শতাংশ বেশি দ্রুততার সঙ্গে কাজ করছে। প্রায় ১১ দিনেই সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেকে।’

তিনি আরো দাবি করেন, ওষুধটি প্রয়োগে রোগীদের কোনো পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার লক্ষ করা যায়নি। তার এই দাবিই কোভিড-১৯ প্রতিরোধে আশার আলো দেখায়। এর পরই মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে রেমডেসিভির ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হলো।

এফডিএ’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে যাদের অবস্থা গুরুতর, যাদের রক্তে অক্সিজেনের উপস্থিতি ব্যাপকভাবে হ্রাস পেয়েছে এবং যেসব রোগীকে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়েছে তাদের ক্ষেত্রেই প্রথম এই ওষুধ প্রয়োগ করা হবে।

গতকাল শুক্রবার এফডিএ’র কমিশনার স্টিফেন হানকে সঙ্গে নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ সময় কোভিড-১৯ মোকাবেলায় রেমডেসিভির ওষুধের ব্যবহারকে ‘খুব আশাব্যঞ্জক পরিস্থিতি’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন তিনি।

রেমডেসিভির ওষুধটি তৈরি করেছে গিলিড সায়েন্সেস। প্রতিষ্ঠানটির সিইও ড্যানিয়েল ও’ডে বলেছেন, হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের ক্ষেত্রেই প্রথমে ব্যবহার করা হবে ওষুধটি। গিলিড আগেই ঘোষণা দিয়েছে যে, প্রথম ১৫ লক্ষ ডোজ তারা বিনামূল্যে দেবে।

উল্লেখ্য, প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে সবার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১১ লাখেরও বেশি। এছাড়া শুক্রবার পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৫ হাজার ৭৭৬ জনে।