ঢাকায় ঢুকতে পরিচয়পত্র দেখাতে হবে পোশাক শ্রমিকদের

৯:২৩ অপরাহ্ন | শনিবার, মে ২, ২০২০ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- করোনাভাইরাসের কারণে মাসখানেক বন্ধ থাকার পর সম্প্রতি সীমিত আকারে পোশাক কারখানা খুলেছে। কর্মস্থলে যোগ দিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ঢাকায় ফিরছে শ্রমিকরা।

সংক্রমণের ঝুঁকি সত্বেও লকডাউন অপেক্ষা করে বৈরি আবহাওয়ার মধ্যেই ঢাকায় ফিরেছে শতশত মানুষ। শারীরিক ও সামাজিক দুরত্বের যেন বালাই নেই। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খেতে হচ্ছে, আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের।

এমন পরিস্থিতিতে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ঢাকায় প্রবেশে কারখানার পরিচয়পত্র বা আইডি কার্ড প্রদর্শন করতে হবে পোশাকশিল্পের শ্রমিকদের। পরিচয়পত্র না দেখাতে পারলে ঢাকার প্রবেশপথেই তাদের আটকে দেওয়া হবে।

শ্রম মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের (ডিআইএফই) আজ শনিবার এই নির্দেশনাটি দিয়েছে। এটি বাস্তবায়নে পুলিশের মহাপরিদর্শক, শিল্প পুলিশের মহাপরিচালকসহ অন্যান্য সরকারি দপ্তরে নির্দেশনার অনুলিপি পাঠিয়েছে অধিদপ্তর।

ডিআইএফইর মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায় স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘কোনো শ্রমিকের কারখানার কাজের জন্য ঢাকায় আসার প্রয়োজন হলে তাঁকে ফ্যাক্টরি আইডি কার্ড সঙ্গে বহন করতে হবে এবং সংশ্লিষ্ট যথাযথ কর্তৃপক্ষকে প্রদর্শন করতে হবে। অন্যথায় ঢাকার প্রবেশপথ, ঘাট ও স্থানসমূহে তাদেরকে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যাবে না।’

এর পাশাপাশি ঢাকার বাইরে অথবা দূর-দুরান্ত থেকে পোশাক শ্রমিকদের পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ঢাকায় আসার ক্ষেত্রে মালিকপক্ষ নিরুৎসাহিত করছে বলেও কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে।

অধিদপ্তর আশা করে, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির কারণে বন্ধ থাকা পোশাক কারখানার একাংশ গত ২৬ এপ্রিল চালু হয়। তার আগে তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ ঘোষণা দেয়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধাপে ধাপে কারখানা খোলা হবে। আপাতত কারখানার আশপাশে অবস্থানরত শ্রমিকদের নিয়ে সীমিত পরিসরে উৎপাদন চলবে। দূরদূরান্ত থেকে শ্রমিকদের আসতে নিষেধ করেছে উভয় সংগঠন।

তারপরও চাকরি হারানোর ভয় ও জীবিকার তাগিদে গত ২৫ এপ্রিল থেকে গণপরিবহন না পেয়ে পোশাক শ্রমিকরা হেঁটে এবং নদী পার হয়ে ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছেন।