কোনও অস্ত্রোপচারই হয়নি, আশঙ্কাজনকও ছিলেন না কিম!

kim

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন বেঁচে আছেন, নাকি মারা গেছেন? গত প্রায় ৩ সপ্তাহ ধরে বিশ্বজুড়ে এই প্রশ্ন ঘোরাফেরা করছিল। তার স্বাস্থ্য নিয়ে নানারকম গুজব-জল্পনাও ছড়িয়েছে।

কিন্তু শুক্রবার (১ এপ্রিল) কিম সুনচন শহরে একটি সার কারখানার উদ্বোধন করতে জনসমক্ষে এসে সব জল্পনা উড়িয়ে দেন। ফিতা কেটে শানচোন শহরের একটি সার কারখানা উদ্বোধন করেন তিনি। তবে এতোদিন কোথায় ছিলেন কিম? কেন নিরুদ্দেশ হয়েছিলেন? এমন সব প্রশ্নের কোন উত্তর মেলেনি।

তবে রবিবার দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম ইয়োনহাপের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, কিম জং উন আসলে অসুস্থ ছিলেন না। এমনকি তার কোনো ধরনের অস্ত্রোপচারও হয়নি।

দক্ষিণ কোরিয়ার দু’জন সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ইয়োনহাপ যখন এই খবর দিয়েছে; তখন দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মাঝে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

কিম যে অস্ত্রোপচার করেননি, সে বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য থাকলেও তা দিতে অস্বীকার করেছেন দক্ষিণের ওই দুই কর্মকর্তা। কিম অস্ত্রোপচার করেছেন বলে যে গুঞ্জন ছড়িয়েছে, সেই ঘটনাকে মিথ্যা বলেছেন তারা। কিমের চলাচলে পরিবর্তন আসায় এই গুঞ্জন বলে মন্তব্য করেন দক্ষিণের কর্মকর্তারা।

এর আগে রোববার সকালের দিকে উত্তর এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি হয়। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন সরকারি একটি কারখানা পরিদর্শন করে আসার পরদিন এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। গত ১১ এপ্রিল থেকে প্রায় তিন সপ্তাহ জনসম্মুখে আসেননি উত্তর কোরিয়ার এই নেতা।

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ৪১ মিনিটের দিকে উত্তর কোরিয়ার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করেছে। তবে দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্তরক্ষী বাহিনী উত্তরের দিকে দুটি গুলি ছুড়েছে। তবে এতে কোনো হতাহত হয়নি।

এর আগে জনসম্মুখে না আসায় কিমের শারীরিক অবস্থা নিয়ে নানা ধরনের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। কয়েকদিন আগে স্থানীয় একটি গণমাধ্যম জানায়, উত্তর কোরিয়ার এই নেতা কার্ডিওভাসকুলারের অস্ত্রোপচার করেছেন।

শনিবার উত্তর কোরিয়ার সরকারি গণমাধ্যম দৈনিক রোডং সিনমুনে কিমের একটি ছবি প্রকাশ করা হয়। সেখানে দেখা যায়, ফিতা কেটে একটি সার কারখানার উদ্বোধন করছেন তিনি। তবে রোডং সিনমুনে প্রকাশিত ওই ছবির সত্যতা যাচাই করা যায়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

উল্লেখ্য, কিমের হঠাৎ উধাও হয়ে যাওয়া এটাই প্রথম না। ২০১৪ সালে একবার ৬ সপ্তাহ পরে জনসমক্ষে এসেছিলেন। একটি বৈদ্যুতিক গাড়িতে চেপে গণমাধ্যমের সামনে এসেছিলেন উত্তর কোরিয়ার নেতা। শনিবারও সেরকমই একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে উত্তর কোরিয়া।

◷ ১১:২২ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, মে ৩, ২০২০ আন্তর্জাতিক