• আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানে একদিনে করোনায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত

palkk

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম করোনা শনাক্ত হয় ২৪ ফেব্রুয়ারি। এদিন রোগীর সন্ধান মেলে আফগানিস্তান ও নেপালে। এর দুই দিন পর করোনা রোগী শনাক্ত হয় পাকিস্তানে। এর পর থেকে ধীরে ধীরে পাকিস্তানে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩শ’র বেশি মানুষ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। গত কয়েকদিনে এটাই একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৩১৫।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২১ হাজার ৫০১ জন। অপরদিকে এখন পর্যন্ত মারা গেছে ৪৮৬ জন। দেশটিতে গত কয়েকদিনে করোনার পরীক্ষা-নিরীক্ষা বাড়ানো হয়েছে। গতকাল ৯ হাজার ৮৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

দেশটিতে লকডাউন জারি রয়েছে। করোনার বিস্তাররোধ করতে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। তবে সোমবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক সংক্ষিপ্ত ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, চলমান লকডাউনে যে কড়াকড়ি অবস্থা রয়েছে তিনি তা শিথিল করার পরিকল্পনা করছেন।

তার মতে, এতে করে অর্থনীতি আবারও গতিশীল হবে এবং যারা দিন মজুর তাদের আয়ের পথ আবারও খুলে যাবে। আগামী ৯ মে পর্যন্ত পাকিস্তানে লকডাউন চলবে বলে এর আগে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

পাকিস্তানে ইতোমধ্যেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫ হাজার ৭৮২ জন। দেশটিতে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ১৫ হাজার ২৩৩ জন। তবে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ১১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

উল্লেখ্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পূর্বাভাস অনুযায়ী, এশিয়ার এই অঞ্চলে করোনা ভয়াবহ রূপ নিতে পারে চলতি মাসেই। তার ইঙ্গিত দেখা গেছে ২ মে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে দৈনিক সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্তের রেকর্ড হয়েছে এই দিনে। তাইতো সময়ের সাথে শঙ্কাও বাড়ছে ঢের।

◷ ১২:০০ পূর্বাহ্ন ৷ বুধবার, মে ৬, ২০২০ আন্তর্জাতিক