বোরকা নিষিদ্ধের দেশ ফ্রান্সে এখন মুখ না ঢাকলেই জরিমানা

১০:২৫ অপরাহ্ন | রবিবার, মে ১০, ২০২০ আন্তর্জাতিক
frrr

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ মুসলিম নারীদের জন্যও বোরকা নিষিদ্ধ ফ্রান্সে। দেশটিতে আইন করে গত প্রায় এক দশক ধরে জনসম্মুখে বোরকা পরা অর্থাৎ মুখ ঢাকা নিষিদ্ধ। অথচ মহামারী করোনা ভাইরাস সেই চিত্র একেবারেই পাল্টে দিয়েছে। এখন দেশটিতে মাস্ক ছাড়া কিংবা মুখ না ঢেকে বাইরে বের হলেই শাস্তির মুখোমুখি হতে হচ্ছে। মুখ না ঢেকে চলাফেরা করলে ১৫০-১৬৫ ইউরো পর্যন্ত জরিমানার বিধান করা হয়েছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি এমানুয়েল ম্যাক্রন গত সপ্তাহে একটি স্কুলের অনুষ্ঠানে ফরাসী পতাকার নীল, সাদা এবং লাল ফিতে দিয়ে সজ্জিত একটি নেভির মুখোশ পরেছিলেন। সেটির নকশাটি দেখে অনেকেই মনে করছেন তারা স্বাধীনতা, সাম্য এবং ভ্রাতৃত্বের আদর্শগুলোর উপর জোর দিয়েছেন।

বিএফএম টিভির এক জরিপের উল্লেখ করে প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ফ্রান্সের ৯৯ শতাংশ মানুষ মুখোশ পরাকে সমর্থন করেছেন। ফ্রান্সে যে ২৬ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে এই সিদ্ধান্ত বদলের পেছনের তার বড় ভুমিকা রয়েছে।

তবে মুখ ঢাকা বাধ্যতামূলক করা হলেও বোরকা পরায় নিষেধাজ্ঞা উঠছে না। ওয়াশিংটন পোস্টকে ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, কভিড -১৯ মহামারি চলাকালীন সময়েও বোরকা নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে। তবে করোনা মাহামারির কারণে লোকদের মুখ ঢেকে চলতে হবে। এ সময় মুখ না ঢাকা থাকলে অন্যদের সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে এমন মুখোশ দিয়ে মুখ ডাকতে হবে যেটা ধর্মীয় প্রতিনিধিত্ব করে না। এই আইন লঙ্ঘন করলে ১৫০-১৬৫ ইউরো পর্যন্ত জরিমানা করা হবে।

এর আগে ধর্মীয় নিরপেক্ষতার কথা বলে ২০০৪ সালে সব সরকারী বিদ্যালয়ে হিজাব নিষিদ্ধ করে ফ্রান্স। ২০১০ সালে যে কোন পাপলিক প্লেসে পুরোপুরি মুখ ঢেকে বোরকা ও নিকাব নিষিদ্ধ করেছিল। ওই সময় যুক্তি দেখানো হয়েছিল, এই পোশাকগুলো জনগণের সুরক্ষার জন্য হুমকিস্বরূপ এবং সমান নাগরিক অধিকারের একটি সমাজের এটা প্রতিনিধিত্ব করে না।

সম্প্রতি ফ্রান্সের বিখ্যাত ‘প্যারিস ফ্যাশন সপ্তাহ’- এ মডেলরা মুখোশ পরেই অংশগ্রহণ করেন। মডেলদের পরিহিত মুখোশগুলো দেখতে অনেকটাই মুসলিম নারীদের হিজাবের মতোই ছিল। শুধু ফ্রান্সেই নয়, বিশ্বের অনেক দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় নারী মডেল থেকে শুরু করে সবাই মুখোশ পরছেন। নিরাপত্তার বিষয়ের দিকে লক্ষ্য রেখেই তারা এ মুখোশ পরছেন।

উল্লেখ্য করোনায় আক্রান্ত শীর্ষ দেশগুলোর মধ্যে ৬ নম্বর অবস্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৭৬ হাজার ৬৫৮ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ২৬ হাজার ৩১০ জন।

Korea news দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনার টিকাদান শুরু

⊡ রবিবার, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২১

মসজিদে আজান বন্ধ করে দিল ইসরায়েল!

⊡ শনিবার, ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০২১

ব্রিটেনে আর ফিরতে পারবেন না শামীমা

⊡ শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২১

গবেষণা করতে গিয়ে ইসলাম গ্রহণ করলেন কানাডিয়ান নারী

⊡ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২৫, ২০২১