সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘বাংলাদেশের দর্শক অস্ট্রেলিয়ানদের চেয়ে অনেক ভাল’- ডু প্লেসি

৬:৩৫ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, মে ১৪, ২০২০ খেলা
tamim

স্পোর্টস আপডেট ডেস্কঃ বুধবার রাতে বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবালের সঙ্গে ভার্চুয়াল আড্ডায় যোগ দিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকান সাবেক অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। এসময় নিজেদের ক্যারিয়ারের নানা দিক এবং আইপিএল-বিপিএলের মতো ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট নিয়েও কথা বলেন তারা।

এ সময় বাংলাদেশের ক্রিকেট এবং দর্শক নিয়েও কথা বলেন ডু প্লেসি। তিনি বলেন, একটা সময় বাংলাদেশ দু তিনজন ক্রিকেটারের ওপর নির্ভরশীল ছিলো। এখন তোমরা অনেক বদলে গেছো। অনেক ভালো ভালো ক্রিকেটার এসেছে তোমাদের। স্পিনার সবসময়ই ভালো ছিলো তোমাদের। এখন পেসাররাও দুর্দান্ত। এই বিশ্বকাপে তোমরা নিজেদের জাত চিনিয়েছো। সাকিব আল হাসান তোমাদের সবচেয়ে বড় তারকা। সে খুবই স্পেশাল। তোমাদের দশর্করাও দুর্দান্ত। অন্তত অস্ট্রেলিয়ানদের চেয়ে অনেক ভালো। অধিনায়কত্ব করার সময় আমি সবসময় সিনিয়র খেলোয়াড়দের সাহায্য পেয়েছি। লিডার গ্রুপের সবাই আমার কাজটা অনেক সহজ করে দিয়েছিলো। আমরা যে পরিকল্পনা করতাম, সেটা মাঠে সবাই মিলে এক্সিজিউট করার চেষ্টা করতাম।

ক্রিকেটের এই স্থবির সময়ে আসন্ন বিশ্বকাপের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন ফাফ। ভাইরাস নির্মুলের আগে মাঠে খেলা শুরু করা অসম্ভব বলেই মনে করেন তিনি। তবে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বিশ্বকাপের সঙ্গে এশিয়া একাদশ এবং বিশ্ব একাদশের ম্যাচটাও খেলতে চান এই প্রোটিয়া ক্রিকেটার। আর সুযোগ আসলে বিপিএল খেলার সম্ভাবনাটাকেও উড়িয়ে দেন নি তিনি।

ফাফ বলেন, বিশ্বকাপ নিয়ে আমি নিশ্চিত না। বিশ্বজুড়ে এখন ভ্রমণ নিষিদ্ধ। অস্ট্রেলিয়া এতো এফেক্টেড না হলেও, এটা নিয়ে মন্তব্য করা দুরুহ। তবে, চেষ্টা করলে হয়তো, ভিন্ন উপায়ে কিছুদিন পরে হলেও বিশ্বকাপ আয়োজন করা সম্ভব। ক্রিকেটাররা আইসোলেশনে থেকে হলেও, এটা আয়োজন সম্ভব। ভাইরাসের প্রকোপ শেষ হলে, এশিয়া একাদশ এবং বিশ্ব একাদশের ম্যাচটি খেলতে চাই আমি। তোমাদের বিপিএলের কথাও শুনেছি। সময় সুযোগ পেলে খেলার ইচ্ছা আছে।

প্রায় আধা ঘণ্টার এই আলাপের শেষ দিকে বিদায়ের আগে ঈদের শুভেচ্ছা জানান ফাফ ডু প্লেসি। প্রোটিয়া তারকা বলেন, বাংলাদেশর সবাইকে বলতে চাই, ধন্যবাদ আমাকে এতক্ষণ শোনার জন্য। তামিম একজন ভালো মানুষ। তাকে আমি সম্মান করি। সবাইকে জানাই ঈদ মোবারক। আশাকরি পরিবারের সবাইকে নিয়ে সাবধানে থাকবেন। এটাই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।