সংবাদ শিরোনাম
‘মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে অপপ্রচারের সুযোগ নেই’- তথ্য প্রতিমন্ত্রী | ইয়েমেনের যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রীকে হত্যাকারী ঘাতক নিহত | বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসায় উপমহাদেশজুড়ে তোলপাড় হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী | মত প্রকাশের স্বাধীনতায়ও সীমাবদ্ধতা আছে: জাস্টিন ট্রুডো | ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার কারণে এক সপ্তাহে ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার | জেমস বন্ড খ্যাত অভিনেতা শন কনারি মারা গেছেন | দালালদের ধরে দেওয়ার আহ্বান প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রীর | সম্প্রসারিত মেট্রোপলিটন এলাকাকে রাজশাহী সিটির অন্তর্ভুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন | আড়াইহাজারে ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের ঘোষণাসহ চার দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল | টাঙ্গাইলে বীর মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ২ |
  • আজ ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রেস্তোরাঁয় ঢুকতে দেয়া হলো না নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে!

১:০৪ অপরাহ্ন | রবিবার, মে ১৭, ২০২০ আন্তর্জাতিক
bangla-

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা ও তার সঙ্গী গ্যাফোর্ডকে শহরের একটি রেস্তোরাঁয় ঢুকতে বাধা দেয়া হয়েছে। অনুমতি না পাওয়া পর্যন্ত রেস্তোরাঁর বাইরেই দাঁড়িয়ে থাকতে বাধ্য হন তারা। ঘটনার অস্বাভাবিকতার কারণে অনেকে বিষয়টিতে আশ্চর্য হয়েছেন।

ওই রেস্তোরাঁয় খাবার খাচ্ছিলেনে এমন একজন টুইটারে লিখেছেন, ‘ওহ আল্লাহ, জেসিন্ডা আর্ডার্ন এইমাত্র অলিভে প্রবেশ করার চেষ্টা করেন কিন্তু ভেতরে মানুষে পূর্ণ থাকায় সঙ্গীসহ তাকে ফিরিয়ে দেওয়া হলো।’

এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গী ক্লার্ক গেফোর্ড উল্লিখিত ওই টুইট বার্তায় পাল্টা মন্তব্যে লিখেছেন, ‘প্রকৃতপক্ষে এই ঘটনার পুরো দায় আমি নিচ্ছি। কেননা আমি কোনো কিছুর আয়োজন ঠিকমতো করিনি এবং কোনো রেস্তোরাঁও বুক করিনি।’

করোনাভাইরাসের কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে একই সময়ে উপস্থিত গ্রাহক সংখ্যা ১০০-তে সীমাবদ্ধ রাখছে অলিভ রেস্তোরাঁ। প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা ও তার সঙ্গী গ্যাফোর্ড যখন যান সেখানে তখন তাদের কোটা পূর্ণ হয়ে গেছে। তাই রেস্তোরাঁয় ঢুকতে বাধা দওয়া হয় তাদের। অগত্য দাঁড়িয়ে থাকতে হয় কয়েক মিনিট।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের একজন মুখপাত্র গার্ডিয়ানকে বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে সরকারি নির্দেশনা মানার ফলে এই সময়ে কোনো ক্যাফেতে ঢুকতে যে কারও অপেক্ষা করতে হওয়াটা স্বাভাবিক ঘটনা। আর প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনিও অন্য সবার মতো অপেক্ষা করছিলেন।

নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড জানিয়েছে, পরে প্রধানমন্ত্রী শেষ পর্যন্ত ওই রেস্তোরাঁয় ঢুকতে পেরেছিলেন।

রেস্তোরাঁটির একজন মালিক বলেছেন, ঘটনার সময় দায়িত্বরত ব্যবস্থাপক প্রধানমন্ত্রী ও তার সঙ্গীকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ঠিকই, কিন্তু কয়েক মিনিট পরই একটি টেবিল খালি হলে ব্যবস্থাপক দৌড়ে বাইরে যান এবং তাদের নিয়ে আসেন।

উল্লেখ্য করোনা মহামারির সার্বক্ষণিক তথ্য প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফোর সবশেষ তথ্য অনুসারে, নিউজিল্যান্ডে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৪৯৮ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে ২১ জন মারা গেলেও চিকিৎসা শেষে এখন ১ হাজার ৪২৮ জন সুস্থ।