সংবাদ শিরোনাম
আম্পানে সুন্দরবনের ক্ষতি বুলবুলের চেয়ে ‘৩ গুণ’ বেশি | মাংস কিনতে গিয়ে এন‌জিও কর্মী নিখোঁজ, ঈদের দিন মিলল মরদেহ | আম্পানে ভেসে গেছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল মানুষের ঈদ, এখন চলছে বেঁচে থাকার যুদ্ধ | আড়াই মাসে সর্বনিম্ন প্রাণহানি দেখলো ইতালি | সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানালেন খালেদা জিয়া | ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা, সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত | গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কিটের ট্রায়াল স্থগিত | গাজীপুরে ঈদের নামায এবং বাবার কবর জিয়ারত শেষে বাড়ি ফেরার পথে যুবক খুন | দাফনের টাকা নিয়েও তিস্তায় ভাসিয়ে দেওয়া হল করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃতের লাশ | কিট সংকটে নোবিপ্রবির ল্যাবে করোনা পরীক্ষা বন্ধ |
  • আজ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জে আরও ১১ জন করোনা রোগী শনাক্ত

১:০৮ অপরাহ্ণ | রবিবার, মে ১৭, ২০২০ সিলেট
test

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জে আরও ১১ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। শনিবার (১৬ মে) রাতে হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মখলিসুর রহমান এই তথ্য জানান। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১২৯ জন। যা সিলেট বিভাগে সর্বোচ্চ।

ডেপুটি সিভিল সার্জন আরও জানান, শনিবার যে ১১ জনের পজিটিভ পাওয়া গেছে তাদের মধ্যে ৯ জন সদর উপজেলার ও বাকী দুইজন জেলার বানিয়াচং উপজেলার। এদের মধ্যে ৫ জন নারী ও ৬ জন পুরুষ। তিনি আরও জানান, ঢাকার আগারগাঁওস্থ ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ল্যাবরেটরি এন্ড রেফারেল সেন্টার থেকে এই ১১ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত করা হয়েছে বলে আমাদের নিশ্চিত করেছে।

এদিনই সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে স্থাপিত লিমার চেইন রি-অ্যাকশন (পিসিআর) ল্যাবে আরও ১৮ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্তের তথ্য নিশ্চিত করেন হাসপাতালটির উপ পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায়। যাদের ১৪ জনই জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার। আর দুইজন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সেবিকা ও সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের ১ জন ব্রাদার রয়েছেন।

এ নিয়ে সিলেট বিভাগের ৩৮৮ জনের শরীরে ধরা পড়েছে করোনাভাইরাস। এদের মধ্যে সিলেট জেলায় ১৩৪ জন, সুনামগঞ্জে ৬৮ জন, হবিগঞ্জে ১২৯ জন ও মৌলভীবাজারে ৫৭ জন। সিলেটে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৬ জন, সুস্থ হয়েছেন ৬৯ জন এবং হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৪১ জন।