সংবাদ শিরোনাম
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা করোনা পজিটিভ | সীমিত আকারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কার্যালয় খোলার নির্দেশনা | করোনায় দেশে পারিবারিক আয় কমেছে ৭৪ শতাংশ, চাকরি হারিয়েছেন ১৪ লাখ প্রবাসী | ‘যে ওষুধ সাধারণদের কেনার সামর্থ্য নেই, সেই ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করব না’ | প্রতিবন্ধী বাবার প্রতিবন্ধী মেয়ে জাহানারা পেলেন জিপিএ-৫ | তানোরে এবার ঢাকা ফেরত দম্পতি করোনায় আক্রান্ত | নওগাঁয় করোনায় আক্রান্ত হয়ে কাপড় ব্যবসায়ীর মৃত্যু | চট্টগ্রামে ৬২১ নমুনা পরীক্ষায় ২০৮ জনের করোনা পজিটিভ | লালমনিরহাটে দুর্গম চরাঞ্চলে গিয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন এসিল্যান্ড | করোনা আক্রান্ত মোহাম্মদ নাসিমকে আইসিইউতে স্থানান্তর |
  • আজ ১৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

৪২ লাখে বিক্রির পরেও মাশরাফির হাতেই থাকবে ব্রেসলেটটি

৯:৩২ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, মে ১৮, ২০২০ খেলা
mash

স্পোর্টস আপডেট ডেস্কঃ করোনা মোকাবেলায় শুরু থেকেই অসহায় মানুষদের পাশে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। অসহায়দের সহায়তার জন্য তহবিল গঠন করতে নিজের পছন্দের ব্রেসলেটটি নিলামে বিক্রি করে দিয়েছেন ম্যাশ। ৪২ লাখ টাকায় সেটি কিনেছে বাংলাদেশ লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স কোম্পানি অ্যাসোসিয়েশন (বিএলএফসিএ)। তবে ব্রেসলেটটি মাশরাফিকেই উপহার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

রোববার (১৬ মে) দিনগত রাত পৌনে একটায় শেষ হয় নিলামটি। ফেইসবুকে ‘Auction 4 Action’ পেইজ-এ নিলামে ব্রেসলেটটির ভিত্তিমূল্য ধরা হয় ৫ লাখ টাকা। নিলামে তুমুল আগ্রহ ও লড়াই শেষে এটি কিনে নেয় বিএলএফসিএ। এই অর্থ দিয়ে মাশরাফির ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সহায়তা করা হবে করোনাভাইরাসের এই দুঃসময়ে অসহায় মানুষদের।

তবে নিলামে বিক্রি হলেও ব্রেসলেট থাকবে হাতেই। বিএলএফসিএর চেয়ারম্যান মমিন উল ইসলাম জানিয়েছেন, ব্রেসলেটটি তারা উপহার হিসেবে মাশরাফিকেই ফিরিয়ে দিতে চান। নিলামের শেষ সময় ফেসবুক লাইভে উপস্থিত ছিলেন মাশরাফি। সেখানেই বিএলএফসিএ’র চেয়ারম্যান এই ঘোষণা দেন।

মমিন উল ইসলাম বলেন, ‘আপনি এই দেশকে যে সম্মান এনে দিয়েছেন, সেই সম্মানের প্রতিদান আসলে কোনোভাবেই হয় না। কিন্তু এতটুকু করে আমরা চেষ্টা করেছি, আপনাকে একটু হলেও সম্মানিত করতে। কিন্তু এটার দাম কোনোভাবেই হয় না, এটা মূল্যহীন। এই ব্রেসলেটটা আমার কাছে মনে হয়েছে, আপনার অসম্ভব প্রিয়। ১৮ বছর ধরে আপনার হাতে আছে এবং এই ব্রেসলেটটা আপনার হাতেই মানায়। আমাদের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো এ ব্রেসলেটটি আপনাকে উপহার দিতে চায়। আমরা চাই, আপনি উপহারটি গ্রহণ করেন।’

এমন সম্মানে মাশরাফিও তাদের প্রতি ধন্যবাদ-কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। মাশরাফি বলেন, আপনারা যদি ব্রেসলেটটি নিজেদের কাছে রাখেন তাতেও আমি কষ্ট পেতাম না। এটা আপনাদের হাত থেকে পাওয়ার আগ পর্যন্ত আমি এটা আর পরবো না।

উল্লেখ্য মাশরাফি তার ক্যারিয়ারের সূচনালগ্ন থেকেই ব্রেসলেটটি হাতে পড়ে মাঠে নামেন।