• আজ ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মিরপুরে ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘তারার মেলা’

◷ ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন ৷ বুধবার, মে ২০, ২০২০ ঢাকা, দেশের খবর
Im00 1

রাজু আহমেদ, স্টাফ রিপোর্টার- দেশজুড়ে চলমান বৈশ্বিক মহামারী করোনার থাবায় কর্মহীন ও দুস্থ জনগোষ্ঠীর মাঝে প্রথমবারের মতো ত্রাণসামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে রাজধানীর মিরপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মপ্রকাশ করলো নবগঠিত ‘তারার মেলা’ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

মঙ্গলবার (১৯ মে) সংগঠনটির শুভসূচনা স্বরূপ সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ সোহাগ ইসলামের নেতৃত্বে ও সকল সদস্যদের অর্থায়নে মিরপুরের শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামের পার্শ্ববর্তী এলাকায় ২০টি দুস্থ পরিবারের মাঝে ৫ কেজি চাল, দুই কেজি আলু, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ কেজি লবন, ১ লিটার তেল ও একটি সাবান বিতরণের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মপ্রকাশ করে ‘তারার মেলা’ নামে স্বেচ্ছাসেবী এ সংগঠন।

এ বিষয়ে সংগঠনটির আহ্বায়ক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক কামরুল ইসলাম শ্যামল সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, কিছু উদীয়মান তরুণ ও যুবকদের সমন্বয়ে তাদের একান্ত স্বেচ্ছাসেবামূলক অংশগ্রহণে সমাজের বিশেষ জনগোষ্ঠীর মাঝে সম্মিলিত স্বেচ্ছাসেবা প্রদানের ব্রত নিয়ে আজকের এই ‘তারার মেলা’ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির আত্মপ্রকাশ। মূলত একটি অরাজনৈতিক, অলাভজনক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসেবে ‘তারার মেলা’ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির প্রধান কার্যক্রম থাকবে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসুচী, অসহায়, দুস্থ, সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর পাশে থেকে তাদেরকে স্বেচ্ছাসেবা প্রদান করা।

কামরুল ইসলাম শ্যামল আরো বলেন, আজকের উন্নয়নশীল ডিজিটাল বাংলাদেশে পথশিশু যারা, কেন তারা পথশিশু হয়? কী আছে তাদের জীবনে– এমন প্রশ্নের তেমন কোনো উত্তর নেই আমাদের কাছে৷ তবে পথশিশু বোধহয় তারাই, যাদের আজ ন্যূনতম মৌলিক অধিকারটুকুও ভোগ করার অধিকার নেই৷ অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ সামনে রেখে খোলা আকাশের নীচে যাদের দিন-রাত কেটে যায় নিরাপত্তাহীনতায়৷ তাদের পাশে থাকার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে সংগঠনটির শুভযাত্রা শুরু হলো। পরবর্তীতে সামর্থ্য অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন পর্যায়ের জনগোষ্ঠীকে প্রয়োজনীয় স্বেচ্ছাসেবা প্রদানের আশাবাদ ব্যাক্ত করছি। পাশাপাশি সংগঠনটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে অন্তরের অন্তস্তল থেকে গভীর শ্রদ্ধা ও সাধুবাদ জানাই।

সততা, নিষ্ঠা, সাহস, আত্মপ্রত্যয় নিয়ে আজ যারা ‘তারার মেলা’র মতো এমন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সৃষ্টি করেছেন তাদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করছি। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি-মনে রাখবেন, সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বহু অসাধ্য সাধন করার নজির রয়েছে পৃথিবীতে। ভালো কাজে বহু বাধা-বিপত্তি আসতে পারে। তবে থেমে থাকলে চলবে না। সকল বাধা বিপত্তি পদদলিত করে সফলতার চুড়ায় পৌছানোর নামই বিজয়।

এ বিষয়ে ‘তারার মেলা’ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য সিনিয়র সাংবাদিক মনিরুজ্জামান মনি সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, এই সংগঠনটি নির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তি, গোত্র বা জনগোষ্ঠীর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। এ সংগঠনটির দরজা সপ্তাহে সাত দিন চব্বিশ ঘণ্টা উন্মুক্ত থাকবে সার্বজনীনভাবে। স্বদিচ্ছা থাকলে দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে যে কেও প্রতিষ্ঠানটির সুনির্দিষ্ট নীতিমালা মেনে স্বেচ্ছাসেবা গ্রহণ ও প্রদান করতে পারবেন।

সংগঠনটির আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশের শুভসূচনা হিসেবে দুস্থ ও কর্মহীনদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে সাংবাদিক মাসুদ সাগর, সাংবাদিক হাবিবুর রহমান সোহাগ ও সময়ের কণ্ঠস্বরের স্টাফ রিপোর্টার রাজু আহমেদসহ আরো অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

তবে সামর্থ্য অনুযায়ী এ কার্যক্রম অব্যহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন নবগঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের আহ্বায়কবৃন্দ।