সংবাদ শিরোনাম
প্রতিবন্ধী বাবার প্রতিবন্ধী মেয়ে জাহানারা পেলেন জিপিএ-৫ | তানোরে এবার ঢাকা ফেরত দম্পতি করোনায় আক্রান্ত | নওগাঁয় করোনায় আক্রান্ত হয়ে কাপড় ব্যবসায়ীর মৃত্যু | চট্টগ্রামে ৬২১ নমুনা পরীক্ষায় ২০৮ জনের করোনা পজিটিভ | লালমনিরহাটে দুর্গম চরাঞ্চলে গিয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন এসিল্যান্ড | করোনা আক্রান্ত মোহাম্মদ নাসিমকে আইসিইউতে স্থানান্তর | ভূঞাপুরে বিল সাঁতরে কৃষকের স্বপ্নের ধান বাড়িতে পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ | স্ত্রীর মামলায় স্বামী, শ্বশুর-শ্বাশুড়ি ও দেবর গ্রেফতার | লাদাখ সীমান্তের খুব কাছে উড়ছে চীনা যুদ্ধবিমান, সতর্ক ভারত | কাশ্মীর থেকে লাদাখ সীমান্তে হাজার হাজার সৈন্য আনছে ভারত |
  • আজ ১৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভারতে একদিনে ৬০৮৮ রোগী শনাক্ত, মৃত ১৫০

১:৩০ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, মে ২২, ২০২০ আন্তর্জাতিক
ind

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতে জেঁকে বসা করোনায় প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। দেশটিতে একদিনেই আরও ৬ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৬ হাজার ১৯৮ জন। অপরদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১৫০ জন।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৮ হাজার ২২৬। এর মধ্যে মারা গেছে ৩ হাজার ৫৮৪ জন। ইতোমধ্যেই সেখানে সুস্থ হয়ে উঠেছে ৪৮ হাজার ৫৫৩ জন। দেশটিতে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ৬৬ হাজার ৮৯টি।

ভারতে করোনাক্রান্তের সংখ্যায় অনেক দিন ধরেই শীর্ষে মহারাষ্ট্র। সারাদেশের মোট আক্রান্তের তিন ভাগের এক ভাগই সেখানে। গত ২৪ ঘণ্টায় দু’হাজার ৩৪৫ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন সেখানে। এতে করে সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ হাজার ৬৪২ জনে হয়েছে। এর মধ্যে মুম্বই শহরেই আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজারেরও বেশি।

আক্রান্তের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। রাজ্যটিতে আক্রান্ত ১৩ হাজার ৯৬৭ জন। দ্বিতীয় স্থানে থাকা গুজরাটে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৯০৫ জন। রাজধানী দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ১১ হাজার ৬৫৯ জনে।

এরপর ক্রমান্বয়ে রাজস্থান (৬ হাজার ২২৭), মধ্যপ্রদেশ (৫ হাজার ৯৮১), উত্তরপ্রদেশ (৫ হাজার ৫১৫), পশ্চিমবঙ্গ (৩ হাজার ১৯৭), অন্ধ্রপ্রদেশ (২ হাজার ৬৪৭), পঞ্জাব (২ হাজার ০২৮), বিহার (১ হাজার ৯৮২), তেলঙ্গানা (১ হাজার ৬৯৯), কর্নাটক (১ হাজার ৬০৫), জম্মু-কাশ্মীর (১ হাজার ৪৪৯) ও ওড়িশা (১ হাজার ১০৩), হরিয়ানা (১ হাজার ৩১)-র মতো রাজ্য।

দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধিতে রেকর্ডের মধ্যেই সুস্থ হয়ে ওঠার হার বৃদ্ধি প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কিছুটা আশা জাগাচ্ছে। মোট আক্রান্তের মধ্যে এখনও অবধি ৪৮ হাজার ৫৩৪ জন বেঁচে ফিরেছেন। এর মধ্যে গত একদিনেই সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন তিন হাজার ২৩৪ জন।

উল্লেখ্য গত ডিসেম্বরে চীনে করোনা সংক্রমণের পর ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে ৩ লাখ ৩২ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ১৯ লাখ মানুষ।