• আজ ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে লঞ্চ চলাচল শুরু, সামাজিক দূরত্ব মানছেন না কেউ

৪:৪৫ অপরাহ্ণ | রবিবার, মে ৩১, ২০২০ ঢাকা
nou

মোঃ রুবেল ইসলাম তাহমিদ, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে আজ থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ৮৭ টি লঞ্চ চলাচল করছে। মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট থেকে দক্ষিণবঙ্গগামী যাত্রী চাপ বেশি না থাকলেও ঢাকা মূখী কর্মস্থলে ফেরা যাত্রী চাপ রয়েছে।

ঘাট এলাকায় বিআইডব্লিউটিএ কতৃপক্ষ এবং পুলিশ দায়িত্ব পালনে হিমশিম খাচ্ছেন। অপর দিকে লঞ্চে কর্মস্থলে ফেরা মানুষ সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখছে না। কাঁঠালবাড়ি থেকে লঞ্চে আসা যাত্রীরা গণপরিবহন না থাকায় শিমুলিয়া ঘাটে এসে পরছেন বিপাকে। মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ ভাড়ায় চালিত মাইক্রোবাস ও ৩ জন নিয়ে মোটর সাইকেল আরোহীদের মামলা দিচ্ছেন ও জরিমানা আদায় করতে দেখা গেছে।

আজ রবিবার সকাল ৭ টায় শিমুলিয়া ঘাট থেকে প্রথম লঞ্চ ছেড়ে যায়। লঞ্চ মালিক সমিতির পক্ষ থেকে লঞ্চে ওঠার সময় কোন রকম হ্যান্ডসেনিটাইজার ব্যবহার করছে। ঘাট এলাকায় বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষ থেকে ৪ টি পয়েন্টে হাত ধোঁযার সাবান পানি রাখা হলেও কেউ ব্যবহার করছে না। কতৃপক্ষের তদারকি তেমনটা চোখে পরেনি। লঞ্চে ৩৩ টাকার ভাড়া ৫০ টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ফেরী ও স্পীডবোট চলাচল স্বাভাবিক আছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির এসিস্টেন্ট সেক্রেটারী মো. আলী আক্কাস জানান, সরকারের নিয়মনীতি মেনে লঞ্চে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।

অপর দিকে বিআইডব্লিউটিএ শিমুলিয়া ঘাট টিআই (ট্রাফিক পরিদর্শক) মো. সোলেমান জানান, আমরা মাইকিং করছি, মাস্ক ছাড়া যাত্রী পারাপার করা হয়না। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে লঞ্চে ওঠা নামা করার জন্য। কিন্তু যাত্রী চাপে সম্ভব হচ্ছে না। আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। ৮৭ টি লঞ্চ রয়েছে, প্রতি ১০ মিনিট পর পর একটি করে লঞ্চ ছেড়ে যাচ্ছে। নিয়মের মধ্যে যাত্রী উঠানো হয়। কিন্তু কাঁঠালবাড়ি থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চে কোন কোনটায় কিছুটা এদিক সেদিক হচ্ছে। যাত্রী চাপের কারনে সবকিছু ঠিক রাখা যাচ্ছে না।

মাওয়া ট্রাফিক ইনচার্জ মো. হিলাল উদ্দিন জানান সকালে সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত ১১ টা গাড়িকে মামলা দেওয়া হয়েছে। এ সময় ১৪ হাজার টাকা জারিমানা আদায় করা হয়েছে।