সংবাদ শিরোনাম
গাজীপুরে পিবিআইয়ের অভিযানে অপহরণকারী চক্রের  ২সদস্য গ্রেফতার | সিলেট এবং খাগড়াছড়িতে ধর্ষণের প্রতিবাদে গাজীপুরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ | শিল্পপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে ভূমিমন্ত্রীর শোক | বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড দলকে অভিনন্দন জানালেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী | ‘শেখ হাসিনার জন্যই গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা পেয়েছে’- মেয়র তাপস | ‘নভেম্বরে আসতে পারে করোনার ভ্যাকসিন’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী | শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির বাতিঘর ও কাণ্ডারি: শিক্ষামন্ত্রী | শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা ও এইচএসসি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন শিক্ষামন্ত্রী | দেশে ইতিহাস বিকৃতির জনক জিয়াউর রহমান: কাদের | শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়ার অফুরন্ত প্রেরণা: কাদের |
  • আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মাগুরায় দুর্নীতির দায়ে বরখাস্তকৃত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ

১:১৩ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুন ৪, ২০২০ খুলনা, দেশের খবর

মতিন রহমান, মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা সদরের শত্রুজিৎপুর কলেজ অধ্যক্ষ মাহাবুবুল ইসলামের বিরুদ্ধে গত ২০১৮ সালের মে মাসে কলেজ কেন্দ্রিক নানা অনিয়মের ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসন বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করে এলাকাবাসী।

অভিযোগের ভিত্তিতে দীর্ঘদিন তদন্ত শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পরে তার এমপিও সাময়িক স্থগিত করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপর চলতি বছরের ১৫ই ফেব্রুয়ারি তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেন উক্ত কলেজ পরিচালনা পর্ষদ।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, অধ্যক্ষ মাহাবুবুল ইসলাম চলতি বছরের গত ১৫ই ফেব্রুয়ারি সাময়িকভাবে বরখাস্ত হওয়ার পরে অত্র কলেজের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রতন কুমার বিশ্বাসকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেওয়া হয়। কিন্তু ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর ৩ মাসেরও বেশি সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও মাহাবুবুল ইসলাম অত্র কলেজের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আসবাবপত্রের কোনো হিসাব বুঝিয়ে না দেওয়ার অভিযোগ আনেন কলেজ কর্তৃপক্ষ।

ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রতন কুমার বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, ৩ মাসেও বেশি সময় ধরে কলেজে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। কিন্তু আজও তাকে কলেজের রেজুলেশন খাতা, কলেজের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং কলেজের বিভিন্ন কক্ষের চাবি অধ্যক্ষ মাহাবুবুল ইসলাম তাকে বুঝিয়ে দিচ্ছেন না।

তিনি আরো বলেন, কলেজের অফিসিয়াল কাগজপত্র তার দায়িত্বে না থাকার কারণে অফিসিয়াল অনেক কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। সামনে এইচএসসি পরীক্ষা। শিক্ষার্থীদের ব্যপারে অফিসিয়াল বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হচ্ছে। কম্পিউটার ল্যাব কক্ষ চালু করা যাচ্ছে না। এছাড়া কলেজের যাবতীয় হিসাব নিকাশের সমস্যা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

আরো জানা যায়, এসব কারণে প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র ও আসবাবপত্র বুঝে না দেওয়ার অভিযোগ এনে কলেজ কর্তৃপক্ষ আবেদন করে আইনি পদক্ষেপ নেন।

বুধবার (৩ রা জুন) সার্চ ওয়ারেন্টওয়ালী জারি করার মাধ্যমে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন শত্রুজিৎপুর পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক ইন্সপেক্টর বিশারুল ইসলাম তার সঙ্গীয় ফোর্সসহ কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি এ্যাড.সনজিৎ কুমার বিশ্বাসসহ সদস্যরা এবং স্থানীয় অভিভাবকদের সম্মুখে কলেজের প্রয়োজনীয় মালামাল ও কাগজপত্র কলেজ কর্তৃপক্ষকে বুঝে দেন। এছাড়া যেসকল কাগজপত্র পাওয়া যায়নি সেগুলোর ব্যপারে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানান কলেজ কর্তৃপক্ষ।

উক্ত বিষয়ে জানতে চাইলে এসব ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি এ্যাড. সনজিৎ কুমার বিশ্বাস। এদিকে সার্চ ওয়ারেন্টের সময় কলেজে দেখা যায়নি বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ মাহাবুবুল ইসলামকে।

এসব বিষয়ে ইন্সপেক্টর বিশারুল ইসলাম বলেন, তারা সার্চ ওয়ারেন্ট পেয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে কাগজপত্র ও আসবাবপত্র তল্লাশি করেন। তবে কলেজ কর্তৃপক্ষের ভাষ্য মতে তারা অনেক প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাওয়া যায়নি বলেও জানান ইন্সপেক্টর বিশারুল ইসলাম।