সংবাদ শিরোনাম
চাঁদপুরে জনবল সংকটে পুলিশ: জেলেদের হামলা অব্যাহত | কয়েদির পোশাকে ভাইরাল মিন্নির ছবি, জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা | মুসলিমদের অনুভূতি আমি বুঝতে পেরেছি : ম্যাঁক্রো | এবার রাশিয়াকে আংশিক মুসলিম রাষ্ট্র বললেন পুতিনের মুখপাত্র | চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরদিনই বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা | ‘মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে অপপ্রচারের সুযোগ নেই’- তথ্য প্রতিমন্ত্রী | ইয়েমেনের যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রীকে হত্যাকারী ঘাতক নিহত | বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসায় উপমহাদেশজুড়ে তোলপাড় হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী | মত প্রকাশের স্বাধীনতায়ও সীমাবদ্ধতা আছে: জাস্টিন ট্রুডো | ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার কারণে এক সপ্তাহে ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার |
  • আজ ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

৯:৫১ অপরাহ্ন | শুক্রবার, জুন ৫, ২০২০ Uncategorized

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শাজাহানপুরে আবু হানিফ প্রামাণিক মিস্টার (৩৬) নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

৫ জুন শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার শাকপালা স্ট্যান্ডে স্থানীয় জামে মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।
নিহত আবু হানিফ প্রামাণিক ওরফে মিস্টার বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং শাজাহানপুর উপজেলার শাকপালা গ্রামের আরমান প্রামাণিকের ছেলে।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সাজেদুর রহমান শাহীন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, হত্যার কারণ জানতে পারলে পরবর্তীতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হবে।

সরেজমিনে গিয়ে এ বিষয়ে স্থানীয়দের কাছে জানতে চাইলে ভয়ে তারা কেউ কথা বলেননি। তবে দলীয় কোন্দল ও প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে অনেকে ধারণা করছেন। আবু হানিফ প্রামাণিক মিস্টারের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানা গেছে।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দীন জানান, হত্যার কারণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। হত্যায় জড়িতদের চিহ্নিত করে আটকের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন….বগুড়ায় গার্মেন্টস কর্মীর লাশ উদ্ধার

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলা থেকে এক গার্মেন্টস কর্মীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার গন্ডগ্রাম এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ ।

নিহতের নাম মীম আকতার (১৯)। তিনি কাহালু উপজেলার কচুয়া গ্রামের মোঃ মিন্টুর মেয়ে। মীম ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন বলে তার কাছে থাকা পরিচয়পত্র দেখে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

পুলিশ জানায়, মীম গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। রাতে বনানী বাসস্ট্যান্ডে নেমে রিকশাযোগে শহরের ঠনঠনিয়ায় তার ভাড়া বাসায় ফেরার কথা থাকলেও তিনি ফেরেননি। শুক্রবার সকালে বনানী-রানীর হাট সড়কের বুড়িতলা এলাক থেকে মীমের লাশ উদ্ধার করা হয়। মীমের কাছে পাওয়া পরিচয়পত্র দেখে লাশ সনাক্ত করে পুলিশ।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সনাতন চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন…. বগুড়ার শেরপুরে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারপূর্বক আইনী ব্যবস্থা পেতে সংবাদ সম্মেলন

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ায় চাঁদা না পেয়ে সংখ্যালঘু মিষ্টি ব্যবসায়ীর বসতবাড়ী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর, মারপিট ও লুটপাটে ৪ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ২৯ মে সন্ধ্যায় বগুড়ার শেরপুর পৌর শহরের পূর্ব ঘোষপাড়ায় (৩নং ওয়ার্ড) ঘটেছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়েরের ৫/৬দিন অতিবাহিত হলেও কোন পদক্ষেপ না থাকায়, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক আইনী ব্যবস্থা ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভূক্তভোগী পরিবার।

এ ঘটনায় ৬ জুন শুক্রবার বেলা ১২টায় শেরপুর উপজেলা প্রেসকাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মিষ্টি ব্যবসায়ী বিপুল মোহন্ত।

সংবাদ সম্মেলনকারীর লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, শেরপুর পৌর শহরের পূর্ব ঘোষপাড়ার বিশ্বনাথ মোহন্তের ছেলে বিপুল মোহন্ত তার বাড়ীতেই মিষ্টির কারখানা তৈরী করে ব্যাবসা করে আসছিল। তার ব্যবসায় ঈশ্বাম্বিত হয়ে প্রতিবেশী সিরাজ বিশ্বাসের ছেলে সোহেল বিশ^াস ইতিপূর্বে বিপুল মোহন্তের কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে নানা ভয়ভীতি ও হুমকী দেখায়। তার অনৈতিক দাবীর প্রেক্ষিতে কয়েক দফায় ১২ হাজার টাকাও প্রদান করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, “২৯ মে বিকালের দিকে মিষ্টির দোকানে আমি কাজ করছিলাম। এসময় আমার ছেলে রিংকু (৬) ও সোহেল বিশ্বাসের মেয়ে সিনথিয়া (৬) খেলাধুলাকে কেন্দ্র করে তুচ্ছ ঘটনায় উভয় পরিবারের মাঝে ঝগড়া হলেও পরে এলাকার লোকজনদের উপস্থিতিতে বিষয়টি মিমাংসাও করে ফেলি।

এরপরে ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আমার কারখানায় আমি ও আমার স্ত্রী রমা মোহন্ত, ছেলে জয় মোহন্ত ও মিষ্টি তৈরীর শ্রমিক কাজ করার সময় সোহেল বিশ্বাস, গফুর শেখ, পলি আক্তার, সেলিম শেখ, সাহেব আলী ও ভোলা দাসসহ ৪০/৪৫ জনের সংঘবদ্ধ দল দেশীয় অস্ত্র লাঠিশোঠা, লোহার রড, কাঠের বাটাম নিয়ে অতর্কিতভাবে কারখানায় হামলা চালায়।

এসময় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ সোহেল বিশ্বাস আমাকে বলে যে, ‘এই নেংটির বাচ্চা, তুই বাকী চাঁদাগুলো দে’। আমি অস্বীকৃতি জানালে সংঘবদ্ধরা আমাকে কিলঘুষি মেরে আমার পকেটে থেকে ৪৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় আমার স্ত্রী রমা মোহন্ত এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা আমার কারখানার জলন্ত খড়ি দিয়ে আঘাত করে।

একপর্যায়ে স্ত্রীর গলা থেকে সোনার চেইন ছিড়ে নিয়ে শ্লীলতাহানি করার চেস্টা ও আমার ছেলে জয়কে মারধর করে। তাদের মারপিটে স্ত্রী ও ছেলে দৌড়ে বাড়ির ঘরের মধ্যে ঢুকলে সন্ত্রাসীরা ওখানেও হামলা চালিয়ে আমার ঘরে রক্ষিত শোকেস ও ড্রয়ারের তালা ভেঙ্গে নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ব্যাংকের ও বাড়ির মুল্যবান কাগজপত্র নিয়ে যায়। এর পরে আমার মেয়ে বর্ষা মোহন্তকে মারধর করে কানের দুল ছিনিয়ে নিয়ে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

আমাদের চিৎকারে আশেপাশের প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পুনরায় কারখানায় মধ্যে রাখা মিষ্টির কাজে ব্যবহৃত মিষ্টিসহ ১৫ গামলা, ঘরে বেড়া ভাংচুর, ১বস্তা চিনি সহ প্রয়োজনীয় বিনষ্ট করে ১ লক্ষাধিক টাকা ক্ষতিসাধনসহ প্রায় ৪ লক্ষাধিক টাকা লুট করে নিয়ে বীরদর্পে চলে যায়”।

এ ঘটনায় বিপুল মোহন্ত বাদী হয়ে গত ২ জুন সন্ধ্যায় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ সোহেল বিশ্বাস, গফুর শেখ, পলি আক্তার, সেলিম শেখ, সাহেব আলী, ভোলা দাস সহ ৪০/৪৫ জন(অজ্ঞাতনামা) আসামী করে শেরপুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।

এর প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পাওয়ার ৫/৬দিন অতিবাহিত হলেও অদ্যবধি কোন আইনী ব্যবস্থা না পাওয়ায় পরিবার পরিজনের জীবনের নিরাপত্তাহীনতা ভূগছেন। এদিকে আসামীপক্ষ বিভিন্ন মাধ্যম থেকে ঘটনার মিমাংসার জন্য হুমকী ধামকী দিয়ে আসছে বলে ভুক্তভোগী বিপুল মোহন্ত জানিয়েছেন।

এ ছাড়াও থানায় লিখিত অভিযোগে উল্লেখিত আসামীদের মধ্যে গফুর শেখের স্ত্রী শেফালী খাতুন থানার ওসি সাহেবের বাসার পরিচারিকা হওয়ার সুবাদে এ ঘটনায় ‘আসামীদের গ্রেফতার তো দুরের কথা, মামলা বা এজাহার হিসেবে গণ্যই করতে পারবো না’ বলে আসামী পক্ষরা এলাকায় বলে বেড়াচ্ছে।

এ দিকে থানার বড়কর্তার সাথে যদি বিবাদী বা বিবাদী পরিবারের লোকজনের গোপন সখ্যতা থাকে তাহলে আমাদের মতো গরীব ও সহজ সরল লোকজন কিভাবে সঠিক বিচার পাবে ? বলে কান্না জড়িত কন্ঠে এমন হতাশা ও আক্ষেপ করে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও আইনী ব্যবস্থা চেয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ভূক্তভোগী বিপুল মোহন্ত ও তার স্ত্রী সন্তানেরা।

১৫ বছর ধরে শিকলবন্দি ফেনীর শাহজালাল!

মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২০